ইউপি নির্বাচনের পর জাতীয় নির্বাচন?

০৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ০২:৪৬:২০

ঢাকা: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে তৈরি হওয়া রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান চলতি বছরেই হতে পারে। আসন্ন ইউপি নির্বাচনের পর জাতীয় নির্বাচন দিতে পারে আওয়ামী লীগ সরকার।

বেশকিছু দিন আগে আওয়ামী লীগ-বিএনপি নেতাদের মধ্যে আলাপ আলোচনা হয়েছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম এসব খবর বেশ ফলাও করে প্রকাশ করেছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে ২০১৫ সালে জোর আন্দোলন করেছিল বিএনপি। তবে সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে কোন ধরণের আন্দোলনে যায় নি বিএনপি।

২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি ও এরপর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ-বিএনপি নেতারা নরম সূরে কথা কথা বলছে। বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ নেতারা বলছে, গণতন্ত্রের স্বার্থে কয়েকটি শর্ত সাপেক্ষে বিএনপির সঙ্গে আলোচনা রাজি আছে আওয়ামী লীগ।

তাছাড়া ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর মধ্যবর্তী একটি নির্বাচনের কথা সব সময়ই শোনা গেছে। এ বিষয়ে সরকার ও তার দলের ইতিবাচক মনোভাবও একাধিকবার দেখা গেছে।

সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা নির্বাচনের পর সরকার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনও দিচ্ছে। আগামী মার্চেই ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হতে পারে। এই নির্বাচনের পরই হয়তো সরকার একটি জাতীয় নির্বাচনের আয়োজন করবেন। কারণ আওয়ামী লীগ নিজেও বুঝে একটি নির্বাচনের প্রয়োজন রয়েছে।

ড. ফখরুদ্দীন আহমেদ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান হয়ে অন্যায়ভাবে ২বছর ক্ষমতায় ছিল। পাশাপাশি রাজনৈতি নেতাদের উপর চালিয়েছে নির্যাতন। এ কারণেই স্বাধীনতা অর্জনকারী দল আওয়ামী লীগ তত্ত্বাবধাকয়ক সরকার ব্যবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে চেয়েছিল। তবে সে ক্ষেত্রে বিএনপি তাদেরকে সহযোগিতা করেনি। আর এ জন্যই আজ বিএনপিসহ বেশকিছু রাজনৈতিক দল দুর্বস্থার মধ্যে পড়েছে।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাদের গোপন আলোচনার পর এ বছরের প্রথম দিকে আন্দোলনে যায় নি বিএনপি। সে হিসেবে বলা যেতে পারে, দেশের রাজনৈতিক সমস্যা সমাধানের দিকে এগুচ্ছে দেশ। পাশাপাশি দুই দলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল ও ইউপি নির্বাচনের পর, একটি জাতীয় নির্বাচন দিতে পারে বর্তমান সরকার। আর হয়তো এ কারণেই নিশ্চুপ রয়েছে বিএনপি।

লেখক: সাংবাদিক

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: