BD24Live
ঢাকা, রবিবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৩
পল্লব কবির,

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

চাকরি দাবিতে ইবিতে ফের প্রধান ফটকে তালা

২০১৬ ফেব্রুয়ারি ২৭ ১৮:০৮:২৬

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) কর্মকর্তা-কর্মচারী পদে নিয়োগ পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা। শনিবার তারা চাকরির দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক এক ঘন্টা তালাবদ্ধ করে রাখে। এক পর্যায়ে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। চাকরি প্রত্যাশীদের আন্দোলনের কারণে চরম বিপাকে পড়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তালা ভেঙ্গে ফেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরির জন্য শনিবার আবারো প্রধান ফটকে তালা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মী ও বহিরাগতরা। দুপুর দুইটায় তৌফিকুর রহমান হিটলার, আশিকুর রহমান জাপান, কাশেম মাহমুদ,মিজানুর রহমান টিটু, আরব আলী, রাসেল জোয়াদ্দার, ইলিয়াস জোয়াদ্দার, মাহবুবুর রহমান, লিটন, শফিকুর রহমানসহ ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মী ও বহিরাগতরা প্রধান ফটকে তালা দেয়।

এ সময় প্রধান ফটকে অবস্থান নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী বহনকারী বাস চলাচলে বাধা দেয় তারা। এতে করে চরম ভোগান্তিতে পড়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী তানিয়া সুলতানা বলেন, ‘আমদের প্রয় সময় এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। বিশ্বদ্যিালয় প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যাবস্থা গ্রহন করতে পারছেনা কেন আমার জানা নেই। কিন্তু গুটিকয়েক লোকের কারনে ১৪ হাজার শিক্ষাথী ভোগান্তির শিকার হতে হয়।’

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ অবস্থায় চাকরি প্রত্যাশীদের সাথে বৈঠক করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। উপাচার্য কার্যালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হাকিম সরকার, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহিনুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত রেজিষ্ট্রার এসএম আব্দুল লতিফ, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম প্রমূখ অংশগ্রহণ করেন। বৈঠক শেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন চাকরি প্রত্যাশীদেরকে তালা খুলে দিতে বললে তারা তা করতে অস্বীকৃতি জানায়। এক পর্যায়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানের নির্দেশে আনসার সদস্যরা তালা ভেঙ্গে ফেলে এবং পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক করে দেয়।

প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, ‘তালা লাগানোর পরে তাৎক্ষনিক তাদের সাথে আলোচনা করে বিষয়টির সমাধান করা হয়েছে। এখন ক্যাম্পাস স্বাভাবিক রয়েছে।’

এ বিষয়ে চাকরী প্রত্যাশী আশিকুর রহমান জাপান বলেন, ‘রাজনীতির কারনে আমাদের শিক্ষাজীবন ও ব্যাক্তিগত জীবনের অনেককিছু নষ্ট হয়ে গেছে। আমাদের অধিকাংশ নেতাকর্মীরা বিভিন্ন রাজনৈতিক মামলায় জড়িত। তাই এলাকার বাইরে যাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। দলের কারনে যেহেতু আমাদের সব শেষ হয়েছে তাই তাদেরকে আমাদের রুটি-রুজির ব্যবস্থা করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও দীর্ঘদিন ধরে চাকরির অশ্বাস দিয়ে যাচ্ছে। প্রশাসন তাদেরকে চাকরি না দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের লোকদের চাকরি দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

পরিবহন প্রশাসক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান লেন, ‘তালা ভেঙ্গে ফেলে বাস চলাচল স্বাভাবিক করে দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে কথা হলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হাকিম সরকার বলেন, ‘এই মূহুর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কোন পদে নিয়োগের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় মুঞ্জরি কমিশন থেকে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। নিষেধাজ্ঞ উঠিয়ে নিলে আমরা তাদের বিষয়টি বিবেচনায় নিব বলে জানিয়েছি।’

পাঠকের মতামত:

ক্যাম্পাস এর সর্বশেষ খবর

ক্যাম্পাস - এর সব খবর



রে