ভুল অপারেশনে প্রসূতির মৃত্যু বরিশালে ক্লিনিকে হামলা ভাংচুর

২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:৩৪:১৩

মিজানুর রহমান রনি,
বরিশাল প্রতিনিধি:

ভুল সিজারিয়ান অপারেশনে প্রসূতি গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিকে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে মৃত রোগীর স্বজনেরা। এসময় ক্লিনিকের স্টাফসহ তিনজন আহত হয়। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ রবিবার রাতে এক হামলাকারীকে গ্রেফতার করেছে। সোমবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত মাসুম মীরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। হামলার ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ বিজয়পুর শারমিন ক্লিনিকের।

জানা গেছে, পাশর্^বর্তী কালকিনি উপজেলার আন্ডারচর গ্রামের আলী আহম্মেদের স্ত্রী মৌসুমী আক্তারের (২০) প্রসব বেদনা শুরু হলে তার স্বজনেরা গত ২৫ ফ্রেরুয়ারি সন্ধ্যায় শারমিন ক্লিনিকে ভর্তি করেন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ডাঃ রফিকুল ইসলাম ওই প্রসূতির সিজার অপারেশন করেন। এতে তার একটি পুত্র সন্তান জন্মগ্রহণ করে। ক্লিনিকের মালিক এম.এ ওহাব জানান, সিজার অপারেশনের পর মৌসুমীর অতিরিক্ত রক্তক্ষরন শুরু হওয়ায় রাত দেড়টার দিকে তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

সেখানে রাত সাড়ে তিনটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৌসুমী মারা যায়। তিনি (ওহাব) আরও জানান, ঘটনার পর গত ২৬ ফেব্রুয়ারি কতিপয় যুবক ভুল অপারেশনের অভিযোগ এনে প্রথমদফায় ক্লিনিকে হামলা চালিয়ে আংশিক ভাংচুর করে। পূর্ণরায় রবিবার সন্ধ্যায় মৌসুমীর স্বজনেরা দ্বিতীয় দফায় ক্লিনিকে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। হামলাকারীরা ক্লিনিকের কর্মচারী সাইদুল ইসলাম ও সুজন সরদারকে মারধর করে আহত ও তাকে (ওহাব) লাঞ্ছিত করে। হামলার সময় জানালার ভাঙ্গা গ্লাস পরে এক নবজাতক আহত হয়।

গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) মোঃ আফজাল হোসেন বলেন, রবিবার মধ্যরাতে ক্লিনিকের মালিক এম.এ ওহাব বাদী হয়ে সিরাজুল ইসলাম, আরিফ হোসেন ও মীর মাসুমের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ১৫/২০ জনকে আসামি করে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে মীর মাসুমকে গ্রেফতার করেছেন।

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: