আজ ক্রিকেটবিশ্বের চোখ থাকবে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে। মুখোমুখি হচ্ছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান। চলতি এশিয়া কাপের এই হাইভোল্টেজ ম্যাচ ঘিরে কথার যুদ্ধ শুরু হয়েছে আগেই। ঢাকায় নেমেই নিজেদের ফেভারিট দাবি করেছেন পাকিস্তান অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক। গতকাল পেস অ্যাটাক দিয়ে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের রুখে দেয়ার কথা বলেছেন দলটির অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। অন্যদিকে প্রতিপক্ষ দলের পেস অ্যাটাক নিয়ে উদ্বেগের কোনো কারণ দেখছেন না বলে জানিয়েছেন ভারতের ইনফর্ম ওপেনার রোহিত শর্মা।

ঘুরেফিরে আজকের ম্যাচটিকে পাকিস্তান পেস বনাম ভারতীয় ব্যাটিং হিসেবেই দেখছে সবাই। গতকাল ফতুল্লায় সংবাদ সম্মেলনেও বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছেন আফ্রিদি। তার ভাষায়, ‘ভারতের মূল শক্তি তাদের ব্যাটিং। তাদের ব্যাটসম্যানরা প্রচুর রান করতে পারে। আর আমাদের শক্তির জায়গা পেস অ্যাটাক। আশা করছি, আমাদের পেসাররা ভুল করবে না। বেসিক ঠিক করে সবাই তাদের দায়িত্ব পালন করবে।’ ভারত বধের জন্য পেসারদের নতুন বলে উইকেট নেয়ার ওপর জোর দিচ্ছেন পাকিস্তান অধিনায়ক। বলেছেন, ‘আমি মনে করি আমাদের পেসাররা কন্ডিশনকে কাজে লাগাতে পারবে। আমাদের উইকেট টেকিং পেসারের সংখ্যা বেশি। প্রথম ছয় ওভার আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। আশা করছি, এ সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় উইকেট তুলে নিতে পারবে আমাদের ফাস্ট বোলাররা।’ ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা স্পিনের বিপক্ষে অসাধারণ ব্যাটিং করেন এটাও বলেছেন আফ্রিদি। পাকিস্তান যখন পেস নিয়ে গর্ব করছে তখন নিজেদের সামর্থ্যের প্রতি পুরোপুরি আস্থাবান বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮৩ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলা রোহিত। তার কথায়, ‘পাকিস্তান পেস অ্যাটাক যে দুর্দান্ত তা সবাই জানে। তবে এ নিয়ে আমরা মোটেও উদ্বিগ্ন নই। আমাদের ব্যাটিং অনেক শক্তিশালী। নিজেদের সামর্থ্যের প্রতি আমাদের বিশ্বাস আছে। এখন আমাদের আরো বেশি মনোযোগী হতে হবে।’ নিজ বক্তব্যের সমর্থনে যোগ করেন— ‘আসলে সব দলেরই একটা বিশেষত্ব থাকে। ওদের যেমন ভালো বাঁহাতি পেসার আছে, তেমনি আমাদের আছে ভালো বাঁহাতি স্পিনার। ভালো বাঁহাতি পেসারের প্রসঙ্গ উঠলেই স্বভাবতই সবার আগে চলে আসে মোহম্মদ আমিরের নাম। নিষেধাজ্ঞা ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা আমির নিজের সেরাটা দেয়ার জন্য যে মরিয়া তা বলাই বাহুল্য। আমিরের প্রসঙ্গে রোহিতের ভাষ্য, ‘আমিরের বিপক্ষে আমি আগেই খেলেছি। অন্য বোলারদের যেভাবে খেলিয়েছি একইভাবে তাকেও মোকাবেলা করেছি। আমরা একজনকে নিয়ে আলাদা করে ভাবছি না। আমাদের সবার বিপক্ষেই ভালো করার চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে। কেননা অন্য ম্যাচগুলোর মতো এটাতেও আমরা জিততে চাই।’ টি২০ ক্রিকেটে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতের রেকর্ড ঈর্ষণীয়। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই জিতেছে ভারত। তবে পাকিস্তানকে হালকা করে নেয়ার কোনো সুযোগ নেই বলেই মনে করছেন এ ভারতীয় রান মেশিন। #বণিকবার্তা