ঢাকা: ভেন্যু হিসেবে আবেদনকৃত তিনটি স্থানের কোনোটিতেই যদি সরকার অনুমতি না দেয় তবে কোথায় করবো কাউন্সিল? তাহলে কি আমাদেরকে বুড়িগঙ্গা নদীর ওপর অথবা কোনো স্কুলের প্রাঙ্গণে অনুমতি দেয়া হবে? সরকার বিএনপিকে কাউন্সিল করতে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে রবিবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে কেরানীগঞ্জ দক্ষিণ শাখা যুবদল আয়োজিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন রিজভী। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সকল ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহার এবং স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের মামলা প্রত্যাহারসহ তার বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

ক্ষোভের সঙ্গে রিজভী বলেন, নদী-নালা, খাল-বিল সবকিছু তো যুবলীগ-ছাত্রলীগ দখল করে আছে। এই কারণেই কি আপনারা বিএনপির কাউন্সিল করার জায়গা দিতে পারছেন না? আমরা বারবার অনুরোধ করেছি স্থানের কী হল? এ স্থান তো আওয়ামী লীগের পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। এই স্থান কোনো না কোনো প্রতিষ্ঠানের, তাদের জায়গা তারা দেবে। ১৯ মার্চই বিএনপি জাতীয় কাউন্সিল হবে।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৯ মার্চ বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল ও সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। গত ২৩ জানুয়ারি বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে কাউন্সিলের তারিখ ঠিক করা হয়। ওই বৈঠকেই কাউন্সিলের ভেন্যু হিসেবে তিনটি স্থানকে (বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন) নির্বাচন করা হয়।

বৈঠকের পর পরই কাউন্সিলের ভেন্যু হিসেবে ওই তিনটি স্থানের অনুমতি চেয়ে ডিএমপিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করে বিএনপি। কিন্তু কাউন্সিলের মাত্র ২০ দিন বাকি থাকলেও এখন পর্যন্ত কোনোটির ব্যাপারেই সরকারি অনুমতি পায়নি দলটি।