অনলাইন ক্লাসের বাইরে বশেমুরবিপ্রবির ৬০ শতাংশ শিক্ষার্থী

   
প্রকাশিত: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, ২৯ জুলাই ২০২০

আশরাফুল আলম, বশেমুরবিপ্রবি থেকে: বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী গত ৩০ জুন অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার ঘোষণা দেয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রায় ২৯টি বিভাগেই শুরু হয়েছে অনলাইন ক্লাস। তবে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে ডিভাইস সংকট, আর্থিক সংকট, নেটওয়ার্ক সমস্যা এবং নির্দিষ্ট ক্লাস রুটিন না থাকাসহ বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারণে প্রায় ৬০ শতাংশ শিক্ষার্থীই এই অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারছেনা।

পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী এস এম আসিফ সিদ্দীক অনলাইন ক্লাস সম্পর্কে জানান, ‘আমি গ্রামে থাকায় ঝড়-বৃষ্টি হলে নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারিনা এবং শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশই আমার মত এই সমস্যার ভুক্তভোগী। এছাড়া আর্থিক সমস্যা এবং ডিভাইস সমস্যার কারণেও অনেক শিক্ষার্থী ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারছে না।’

একই সমস্যা উল্লেখ করে আইন বিভাগের শিক্ষার্থী উজ্জ্বল মন্ডল বলেন, ‘নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে আমাকে বাসার বাইরে গিয়ে ক্লাস করতে হয়। কিন্তু ক্লাসের কোনো নির্দিষ্ট রুটিন না থাকায় আমাকে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। এছাড়া কিছুদিন আগে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এই মুহূর্তে উচ্চমূল্য দিয়ে ইন্টারনেট কেনাও সম্ভব হচ্ছেনা। সবমিলিয়ে আমার পক্ষে অনলাইন ক্লাসে নিয়মিত অংশগ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে না।’

ব্যায়বহুল ইন্টারনেট সেবা এবং ক্লাসে মনোযোগ প্রদানে অসুবিধার কথা উল্লেখ করে ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী আরমান খান বলেন, রেকর্ডিং ব্যবস্থা না থাকায় অনলাইন ক্লাস বিশেষ প্রয়োজনে উপস্থিত থাকতে না পারলে হারাচ্ছি পরবর্তীতে পড়া বুঝে নেবার সুযোগ। তাছাড়া হাতে কলমে শেখার উপায় না থাকায় পড়া বুঝতে হচ্ছে ভীষণ অসুবিধা। আর ইন্টারনেট গতি সীমিত হওয়ায় স্পষ্ট কথা শুনতেও হচ্ছে সমস্যা।

এছাড়া শুধুমাত্র শিক্ষার্থীরাই নন সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন শিক্ষকরাও। ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মত অনেক শিক্ষকরাও গ্রামে অবস্থান করছেন। ফলে তারাও নেটওয়ার্ক সমস্যার শিকার হচ্ছেন। আবার আমাদের বিভাগটি ল্যাব নির্ভর হওয়ায় অনলাইনে ক্লাস নেয়াটা বেশ চ্যালেঞ্জিং। তবুও আমরা চেষ্টা করছি থিওরি নির্ভর ক্লাসগুলো নেয়ার। কিন্তু সবচেয়ে বড় বাধা হলো বিভিন্ন সমস্যার কারণে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কম।’

এসকল সমস্যার বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবির উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান বলেন, ‘আমরা সমস্যা সমূহ সমাধানের চেষ্টা করছি।’

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: