অনলাইন ক্লাস: বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসনকে ছাত্র ইউনিয়নের সাত দফা দাবি

                       
প্রকাশিত: ৯:৫০ অপরাহ্ণ, ২ জুলাই, ২০২০

তানবির আলম খান, বশেমুরবিপ্রবি থেকে: অনলাইন ক্লাস শুরু বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সাত দফা শর্ত বেঁধে দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন। বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) ছাত্র ইউনিয়ন, বশেমুরবিপ্রবি সংসদের দপ্তর সম্পাদক সুবর্ণা রায়ের নামে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে দাবিদাওয়া সম্পর্কে ব্যাখ্যাসহ জানানো হয়। এক যৌথ বিবৃতিতে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, বশেমুরবিপ্রবি সংসদের সভাপতি রথীন্দ্র নাথ বাপ্পী ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল মিলন বলেন, সারাদেশ করোনা মহামারীতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী নিজ নিজ এলাকায় অবস্থান করায় নেটওয়ার্ক সমস্যা সহ নানাবিধ সংকটের মধ্যে থাকার পরেও সেইসব সংকট সমাধান না করেই অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম পরিচালনা করাকে একটি বৈষম্যমুলক প্রক্রিয়া হিসেবে চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, বশেমুরবিপ্রবি সংসদ।

এ বিষয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, ইতোমধ্যে সমাজে একটি চরম বৈষম্যমূলক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ঠিক এমন অবস্থায়, দেশের অধিকাংশ শিক্ষার্থীদের বাদ দিয়ে অনলাইন ক্লাস শুরু করা হলে তা হবে ছাত্রদের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের চরম বৈষম্যমূলক আচরণ।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, দৃশ্যমান কোনো জরিপ না করেই দায়সারা ভাবে কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীদের আর্থ-সামাজিক ও মনস্তাত্ত্বিক অবস্থাকে উপেক্ষা করে, শিক্ষকদের প্রশিক্ষিত না করেই, যখন একজন শিক্ষার্থী বিভিন্ন মৌলিক সংকটে ভুগছে তখন অতিরিক্ত বোঝা হিসেবেই এই অনলাইন ক্লাস কার্যক্রমকে শিক্ষার্থীদের উপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ হচ্ছে জ্ঞান উৎপাদন করা এবং মানবিক ও সাম্যের সমাজ প্রতিষ্ঠায় সেই জ্ঞান সমাজে ছড়িয়ে দেয়া… শিক্ষার্থীদের অধিকারের কথা আমলে নিয়ে অনলাইন ক্লাস শুরুর পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে নিম্নোক্ত শর্তসমূহ যথাযথভাবে পূরণের দাবী জানাচ্ছি।

উল্লেখিত সাত দফা দাবি হলো-

১. প্রত্যেক শিক্ষার্থীর অনলাইন ক্লাস করার যাবতীয় ডেটা খরচ বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রদান করতে হবে।

২. যে সকল শিক্ষার্থীদের ডিভাইস নেই, তাদের চিহ্নিত করে ডিভাইস কেনার জন্য অর্থায়নের ব্যবস্থা করতে হবে।

৩. অপারেটরদের সহযোগিতা নিয়ে সব শিক্ষার্থীর জন্য উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

৪. প্রত্যেক শিক্ষার্থীর সাথে সরাসরি যোগাযোগ করে একটি পূর্ণাঙ্গ জরিপ পরিচালনার মাধ্যমে ডাটাবেজ তৈরি করতে হবে।

৫. প্রত্যেকটি ক্লাস যেকোনো সময় যেন যেকোনো শিক্ষার্থী ডাউনলোড করতে পারে তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট সহ, ডিপার্টমেন্টের ফেসবুক গ্রুপ, ইউটিউব ও গুগল ড্রাইভে আপলোড করে মুক্ত অবস্থায় রাখতে হবে। শিক্ষকদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দিতে হবে।

৬. ক্লাসে উপস্থিতির ক্ষেত্রে কোনো বাধ্যবাধকতা বা মার্কস রাখা যাবে না।

৭. শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কাউন্সিলিং কার্যক্রমের পরিধি বৃদ্ধি করতে হবে।

এ ব্যাপারে কয়েকটি দাবি উল্লেখ করে জানতে চাইলে বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. শাহজাহান বিডি২৪লাইভকে জানান, “অফিসিয়ালি দাবিগুলো এখনো পাইনি। ইমেইল গতকাল সকালের পর আর চেক করা হয়নি। তবে এগুলো সবই ইউজিসির পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা হচ্ছে। ইউজিসি-মন্ত্রণালয় মিলে একটা সিদ্ধান্ত দিবে।”

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


লাইফ স্টাইল

লাইফ স্টাইল

পাঠকের মন্তব্য:

সর্বশেষ

বর্তমানে জাতীয় সংসদ, নির্বাচন কমিশন সবিচালয়, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জামায়াত, জাতীয় পার্টি, অপরাধ, সচিবালয়, আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা, খেলাধুলা, বিনোদনসহ প্রায় সব গুরুত্ত্বপূর্ণ বিটেই রয়েছে একঝাঁক তরুণ সাংবাদিক। এছাড়া সারাদেশে বিডি২৪লাইভ ডটকম’র রয়েছে প্রতিনিধি।

লাইফ স্টাইল

নিবন্ধন নং- ০০০৩

© স্বত্ব বিডি২৪লাইভ মিডিয়া (প্রাঃ) লিঃ
এডিটর ইন চিফ: আমিরুল ইসলাম আসাদ
বাড়ি#৩৫/১০, রোড#১১, শেখেরটেক, ঢাকা ১২০৭

ফোন: ০৯৬৭৮৬৭৭১৯০, ০৯৬৭৮৬৭৭১৯১
ইমেইল: [email protected]