এ আর রাশেদ

ইবি প্রতিনিধি

অনুমতি ছাড়াই ইবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে জাবিতে ক্লাস নেয়ার অভিযোগ

   
প্রকাশিত: ৬:৪১ অপরাহ্ণ, ৪ মার্চ ২০২০

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল। অধ্যাপনা করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে। এরমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে ক্লাস নিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ সূত্রে জানা যায়, অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ৩০৪ নম্বর কোর্সে নিয়মিত ক্লাস নিচ্ছেন। বুধবার (৪ মার্চ) বিষয়টি নিশ্চত করেছেন আইন ও বিচার বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক রবিউল ইসলাম।

এ বিষয়ে তিনি জানান, ইবির অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল প্রতি বৃহস্পতিবার (জাবির আইন বিভাগে) এলএলবি (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের একটি ক্লাস নিচ্ছেন। গত দুই সপ্তাহ থেকে তিনি এই ক্লাস নিচ্ছেন। আগামী ১০ মার্চ থেকে আরও একটি কোর্সের ক্লাস নেওয়া ব্যাপারে প্রক্রিয়া চলছে।

ইবি কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই সেখানে ক্লাস নেওয়ার প্রশ্নে তিনি বলেন, আমাদের বিভাগে ক্লাস নেওয়ার জন্য তিনি একটি আবেদন করেছিলেন। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে তাকে নিয়োগপত্র পাঠিয়েছি। তবে তিনি তার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনুমোতি নিয়েছেন কিনা, সেটি বলতে পারছি না।’

এ দিকে একজন শিক্ষক অনুমতি ছাড়া অন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস নিতে পারেন কি না? এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইবির রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ বলেন, ‘তিনি ক্লাস নিতে পারবেন। তবে বিভাগের একাডেমিক কাজে কোন বাধা হবে না এই শর্তে বিভাগীয় প্লানিং কমিটি হয়ে রেজিস্ট্রারের মাধ্যমে উপাচার্যের অনুমোতি নিতে হবে। এছাড়া তার আয়ের দশ শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে।

অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে এ ধরণের কোন অনুমতি নিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে এস এম আব্দুল লতিফ বলেন, ‘তিনি এ ধরণের কোন অনুমতি নেন নি। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।’

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল বলেন, ‘আমি গেস্ট টিচার হিসেবে ক্লাস নিয়েছি। এক্ষেত্রে প্রশাসনের অনুমতি নেয়নি। কারণ, তারা আমাকে পার্ট টাইম হিসেবে দু’টি কোর্স অফার করে গত ২৫ দিন আগে। কিন্তু এ সংক্রান্ত চিঠি বিভাগে পাঠানোর পরও আমি হাতে না পাওয়া প্রসিডিউরটা মেন্টেইন করতে পারেনি।’

এ বিষয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. নুরুন নাহার বলেন, ‘অধ্যাপক শাহজানহান মন্ডল অন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস নিচ্ছেন কিনা এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।’ টিঠির বিষয়ে জানতে চাইলে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নেই বলে জানান তিনি।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: