অবশেষে কোটি টাকার আসবাবপত্র সংরক্ষণে কাজ শুরু

   
প্রকাশিত: ১১:৪৯ অপরাহ্ণ, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: প্রতিনিধি

আশরাফুল আলম, বশেমুরবিপ্রবি থেকে: গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(বশেমুরবিপ্রবি) অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে কেনা প্রায় আট শতাধিক বেড দীর্ঘদিন অযত্ন অবহেলায় পড়ে থেকে রোদ, বৃষ্টি এবং ধুলোবালির কারণে মরিচায় নষ্টের উপক্রম ঘটলে তা সংরক্ষণের কাজ শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

পূর্বে ১৪সেপ্টেম্বর ‘ঝোপঝাড়ের আগ্রাসনে বশেমুরবিপ্রবির কোটি টাকার আসবাবপত্র’ শিরোনামে নিউজ প্রকাশের পর সরজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায় বেড গুলো সংরক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বুধবার (৩০ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টোর কিপার মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ বিষয়টি নিয়ে জানান, মূলত বেডগুলো সরিনোর কাজ গত সপ্তাহ থেকে শুরু হয়েছে। তাছাড়া ইতোমধ্যে প্রায় অর্ধেক বেড সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

বশেমুরবিপ্রবির পরিকল্পনা ও ওয়ার্কস দপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী বশেমুরবিপ্রবির অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে ২০১৭ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত দু’বছরে এসকল বেড ক্রয় করা হয়েছিলো। এ সময়ে নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ড ও খুলনা শিপইয়ার্ড থেকে ১১টি ওয়ার্ক অর্ডারের মাধ্যমে মোট ৪ কোটি ৪৮ লাখ ২৭ হাজার ৬২৫ টাকা মূল্যের দুই হাজার ৬৭০টি হোস্টেল বেড ক্রয় করা হয়।

কিন্তু এসময়ে নবনির্মিত দুটি হলে সর্বমোট আসন সংখ্যা ১০০০। প্রয়োজনের অতিরিক্ত বেড ক্রয় করাতেই মূলত দীর্ঘদিন যাবৎ প্রায় ৮০০ বেড খোলা আকাশের নিচে পড়ে ছিলো। পড়ে থাকা এসকল বেডের প্রতিটির গড় মূল্য ছিলো প্রায় ১৬ হাজার ৭৮৯ টাকা।

এ বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবির স্টোর কিপার মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ জানান, রক্ষণাবেক্ষণের জায়গা সংকটের কারনেই এতদিন বেডগুলো খোলা আকাশের নিচে পড়ে ছিলো। সম্প্রতি আমরা অস্থায়ীভাবে নির্মিত একটি শেডের মালামাল ক্যাফেটেরিয়ার ফাঁকা অংশে স্থানান্তর করেছি এবং ওই শেডে বেডগুলো রাখার ব্যবস্থা করেছি।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: