প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয়নি, স্ত্রীর কাঁধেই ঢলে পড়লেন হাকিম

   
প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, ৯ জুলাই ২০২০

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নানা সমস্যা ও অব্যবস্থাপনার শিকার রোগীরা। কেউ শ্বাসকষ্ট নিয়ে আবার কেউ পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা না পেয়ে মারা যাচ্ছেন। তবে কর্তব্যরত চিকিৎসকদের দাবি, সঠিক সময়ে চিকিৎসা নিতে না আসার কারণেই রোগীর মৃত্যু হচ্ছে।

ষাটোর্ধ্ব আব্দুল হাকিম। নগরীর স্টিল মিল এলাকায় পরিবারের সাথে থাকতেন। হঠাৎ করেই শ্বাসকষ্ট শুরু হলে পোশাক শ্রমিক সন্তান বাবাকে প্রথমে নিকটস্থ ইপিজেড হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কোনো চিকিৎসা সেবা না পেয়ে যানজট ঠেলে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছাতে লেগে যায় প্রায় দেড় ঘণ্টা। সিএনজি অটোরিকশাতেই সহধর্মিনীর কাঁধে মাথা রেখেই ঢলে পড়েন তিনি। তারপরও বেঁচে আছেন এই আশায় নিঃশব্দে কাঁদতে কাঁদতে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ট্রলিতে ওঠান তার নিথর দেহ। রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হন নাম পরিচয়হীন এক মধ্যবয়সী মানুষ। এ সময় মানবিকবোধ থেকে দুই ব্যক্তি অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে আসেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। কিন্তু চল্লিশ মিনিট ধরে জরুরি বিভাগের সামনে অ্যাম্বুলেন্সটি দাঁড়িয়ে থাকলেও পাওয়া যায়নি কোনো সেবা। বিনা চিকিৎসায় পৃথিবীর মায়া ছাড়তে হয় অপরিচিত ব্যক্তিটিকেও। একজন বলেন, ‘১০-১৫ মিনিট পর পর গিয়ে বলছি, রোগী নামান রোগী নামান আমাদের কথা শোনেনি রোগীও নামাইনি।’ এছাড়া প্রতিদিনই শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। সামান্য সেবা পেতে হলেও ওয়ার্ডবয়দের টাকা দিতে হয় বলে অভিযোগ রোগীর স্বজনদের। আর নমুনা পরীক্ষার ফল পেতে অনেক বিলম্ব হওয়ায় বাড়ছে রোগীদের দুর্ভোগ।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: