আক্রান্তের দিক দিয়ে জার্মানি ও ফ্রান্সকেও হারাল ভারত

   
প্রকাশিত: ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ, ৩ জুন ২০২০

দক্ষিণ এশিয়ায় করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত ভারতে প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনের রেকর্ড পরিমাণ সংক্রমণের ফলে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দুই লাখ ছুঁই ছুঁই। শেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনাক্রান্ত হয়েছে ৮ হাজার ১৭১ জন। মৃত্যু হয়েছে ২০৪ জনের। ফলে সর্বোচ্চ আক্রান্তের তালিকায় সাত নাম্বারে উঠে এসেছে মোদির দেশ ভারত। ইতিমধ্যে জার্মানি ও ফ্রান্সকেও ছাপিয়ে গেছে দেশটি।

২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্তের ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৯৮ হাজার ৭০৬ জনে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্তের নিরিখে রাজ্যগুলোর মধ্যে প্রথম সারিতে রয়েছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি ও গুজরাট। আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে দেশে। মোট মৃত্যুর নিরিখে চীন ও রাশিয়াকে আগেই টপকে গিয়েছিল ভারত। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার থাবায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২০৪ জনের। এ নিয়ে করোনায় ৫ হাজার ৫৯৮ ভারতীয়র প্রাণ কাড়ল করোনা। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মৃত্যু হয়েছে দু’হাজার ৩৬২ জনের। গুজরাটে এক হাজার ৬৩ জনের। এরপর রয়েছে রাজধানী দিল্লি। সেখানে মোট ৫২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। শতাধিক মৃত্যুর তালিকায় রয়েছে মধ্যপ্রদেশ (৩৫৮), পশ্চিমবঙ্গ (৩২৫), উত্তরপ্রদেশ (২১৭), রাজস্থান (১৯৮), তামিলনাড়ু (১৮৪)। দেশে আক্রান্তের সংখ্যা সব থেকে বেশি মহারাষ্ট্রে। সেখানে করোনার শিকার ৭০ হাজার ছাডড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দু’হাজার ৩৫৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন সেখানে। এ নিয়ে সে রাজ্যে মোট আক্রান্ত হলেন ৭০ হাজার ১৩ জন। এর পরই তামিলনাড়ু। সেখানে মোট আক্রান্ত ২৩ হাজার ৪৯৫ জন। রাজধানী দিল্লিতে সংক্রমণ ছড়িয়েছে ২০ হাজার ৮৩৪ জনের দেহে। গুজরাটে আক্রান্ত ১৭ হাজার ২০০ জন। এরপর ক্রমান্বয়ে রয়েছে রাজস্থান (৮ হাজার ৯৮০), মধ্যপ্রদেশ (৮ হাজার ২৮৩), উত্তরপ্রদেশ (৮ হাজার ৭৫), পশ্চিমবঙ্গ (৫ হাজার ৭৭২), বিহার (৩ হাজার ৯২৬), অন্ধ্রপ্রদেশ (৩ হাজার ৭৮৩), কর্নাটক (৩ হাজার ৪০৮), তেলঙ্গানা (২ হাজার ৭৯২), জম্মু ও কাশ্মীর (২ হাজার ৬০১), হরিয়ানা (২ হাজার ৩৫৬), পঞ্জাব (২ হাজার ৩০১), ওড়িশা (২ হাজার ১০৪), আসাম (১ হাজার ৩৯০), হাজার (১ হাজার ৩২৬), উত্তরাখণ্ড (৯৫৮)।

এছাড়া, গত একদিনে পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৭১ জন। এ নিয়ে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে পাঁচ হাজার ৭৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। এ রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩২৫ জনের। যদিও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের হিসাব অনুসারে, সরাসরি করোনার কারণে রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৫৩ জনের। ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে কোমর্বিটিডিতে। করোনার কারণে গত ২৪ ঘণ্টায় আট জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: