প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রের সেন্সর সনদ চেয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়

   
প্রকাশিত: ১০:৪৫ অপরাহ্ণ, ৯ আগস্ট ২০২০

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা ও নানা চক্রান্তের ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রের সেন্সর সনদ চেয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার এই চলচ্চিত্রটি সিনেমা হলে মুক্তি দেয়ার জন্যে সারা দেশের হল (প্রেক্ষাগৃহ) খুলে দেয়ার জন্যে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ তথ্যমন্ত্রী ও সচিব বরাবর আবেদন করেন শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার মো: সেলিম খান। এরই প্রেক্ষিতে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে চলচ্চিত্রটির বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে সেন্সর সনদের কপি চেয়েছে মন্ত্রণালয়।

শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি সিনেমা হলে মুক্তি দেয়ার জন্যে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো: সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক পত্রে বলা হয়েছে, কোন চলচ্চিত্র দর্শকদের মাঝে প্রদর্শনের পূর্বে বিধি মোতাবেক সেন্সর সনদ আবশ্যক। এমতাবস্থায়, চলচ্চিত্র প্রযোজক জনাব মো: সেলিম খান কর্তৃক নির্মিত ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সনদ গ্রহণ করা হয়েছে কি না তা জানানোর জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো। উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে সেন্সর সনদ গ্রহণ করা হয়ে থাকলে উক্ত সেন্সর সনদের কপি পত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর করা আবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট শেষ রাত থেকে ১৬ই আগস্ট সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মরদেহ দাফন পর্যন্ত কী ঘটেছিল। ইতিহাসের আলোকে তা জাতির সামনে তুলে ধরতে “আগস্ট ১৯৭৫” চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়েছে। যার মাধ্যমে বিশ্বাসঘাতকদের চক্রান্তের প্রকৃত ইতিহাস জাতি জানতে পারবে। এই চলচ্চিত্রটি ১৫ই আগস্ট বা শোকাবহ আগস্ট মাসের যে কোনো দিনে সামাজিক দূরত্ব ও সরকারি বিধি নিষেধ মেনে সব সিনেমা হলে মুক্তি দেয়া হলে সারা দেশ, নতুন প্রজন্ম ও বিশ্ববাসী শোকাবহ দিনের ঘটনা নতুন করে জানার সুযোগ পাবে। বিশ্বের যেখানেই বাংলা ভাষা-ভাষি আছেন। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে সবার কাছে ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি পৌঁছাতে চায় শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনাল।

‘আগস্ট ১৯৭৫’ নামের এই চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন দেশের খ্যাতনামা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার মো: সেলিম খান। এছাড়া প্রযোজনার সঙ্গে আছেন- মো: সেলিম খান, আফছার উদ্দিন ভূঁইয়া, কাজী মিজানুর রহমান এবং নাসির উদ্দিন।

৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের জহির রায়হান ভিআইপি প্রজেকশন হলে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই চলচ্চিত্রের টিজার ও অফিসিয়াল পোস্টার রিলিজ করা হয়েছে। এসময় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতিসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও কলাকুশলীদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। এদিন বিকেলে চলচ্চিত্রটি সেন্সর বোর্ডে জমা দেয়া হয়েছে।

‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটির গুরুত্ব বিবেচনা করে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি), সকল বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলসমূহ, জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামসহ বিশেষ করে জাতির পিতার স্মৃতিবিজড়িত গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় প্রদর্শনের ব্যবস্থা করতে তথ্য মন্ত্রণালয়কে সদয় নির্দেশনা প্রদানসহ আবেদন জানিয়েছেন শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার সেলিম খান।

‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটির গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, তৌকির আহমেদ, জয়ন্ত চট্টপাধ্যায়, মাসুমা রহমান নাবিলা, ফজলুর রহমান বাবু, আনিসুর রহমান মিলন ও মাজনুন মিজানসহ আরও অনেকে।

এদিকে, ৮ আগস্ট শনিবার শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের পক্ষ থেকে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’, ‘স্বাধীনতা বিরোধী কারা’, ‘দেখো পালায় কারা’, ‘বাবা তুমি ফিরে এসো’, ‘বর্ডার’ এবং ‘নরসুন্দরী’ চলচ্চিত্রের নাম প্রযোজক সমিতিতে এন্ট্রি করা হয়েছে। এই চলচ্চিত্রগুলো দেশব্যাপী ব্যাপক সাড়া ফেলবে বলে আশাবাদী শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার সেলিম খান।

এআইআ/এইচি

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: