আবারও লাইভে আজহারি, দিলেন প্রশ্নের জবাব

   
প্রকাশিত: ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশের বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় ইসলামি বক্তা মিজানুর রহমান আজহারি মালয়েশিয়া থেকে ফেসবুক লাইভে এসে দর্শকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসে উত্তর দিয়েছেন। ফেসবুক লাইভে এসে মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘এ ফেসবুক পেজটি একমাত্র আমার পেজ। এছাড়া আমার অন্যকোন পেজ নেই। যে সমস্ত ফেইক পেজ রয়েছে আমার নামে; সেগুলো আমার না। কেননা আমার নিজস্ব পেজের চেয়ে ফেইক পেজে লাইক বেশি। এজন্য প্রতারণা থেকে বাঁচার জন্য এবং আপনাদের অনুরোধে সপ্তাহে একদিন বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেওয়ার জন্যই ফেসবুকে আজকে লাইভে এসেছি।’

মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘আমি কিছু নাস্তিকের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে একটি বক্তব্যে রাসুল (সা.) এর প্রথম স্ত্রী খাদিজা (রা.) নিয়ে একটি বক্তব্যে দিয়েছিলাম। এরপর কিছু লোক ফেসবুকে আমার আগের ও পরের কথাগুলোকে বাদ দিয়ে বিকৃত করে ভিডিও ছেড়েছেন। এতে করে আমি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি। যারা সুন্নি দাবি করে আমার ভিডিও ছড়িয়েছেন তাদের কাছে বলবো, আপনারা কারো প্রতি জেলাস না হয়ে মাঠে ময়দানে আসেন। নিজেরা দেশের ধর্ম প্রাণ মুসলমানদেরকে নসিহত করুন। অনেকে না জেনে আমার সমালোচনা করেছেন। এরপরেও আমি বলবো যদি কোন ভুল করে থাকি তাহলে দুঃখ প্রকাশ করছি।’ তিনি বলেন, ‘পানি না থাকলে টিস্যু ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু আমাদের দেশে যেহেতু খাদ্য তালিকায় ডাল, শাক-সবজিসহ তরল খাদ্য রয়েছে। সে জন্য পানি এবং টিস্যু দুটি ব্যবহার করবেন। কেননা রাসুল (সা.) এর সময়ে তাঁরা গোসত, খেজুর, পনির খেতেন। যে কারণে তাদের স্টুল (ময়লাগুলো) ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়তো না। এ কারণে ওই সময়ে ঢিলা কলুক ব্যবহার করতেন।’

পর্দার বিধান সম্পর্কে মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘পর্দার নারী-পুরুষ সকলের জন্য ফরজ। উভয়ের চোখকে নিম্নগামী করার জন্য বলেছেন। নারীরা ঢিলেঢালা পোশাক পরবেন। নারীদের ক্ষেত্রে শুধু মুখমণ্ডল ও হাতের কবজি পর্যন্ত খোলা রাখার বিধান রয়েছে। তবে বর্তমান সময়ে মুখ খোলা রাখার কারণে ফেতনা ছড়ানোর সম্ভাবনা বেশি। তাই মুখমণ্ডল ঢেকে রাখা উত্তম। একইসাথে পুরুষরাও পর্দার বিধান পালন করবেন।’ তাবিজ ব্যবহার করা যাবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘রাসুল (সা.) তাবিজ ব্যবহারে নিষেধ করেছেন। যদি আপনার কোন সন্তান জ্বীন-পরীর আসরের শিকার হয়;তাহলে সূরা ফাতেহা, সূরা ফালাক ও সূরা নাস পড়ে ফুঁক দিবেন। এতে করে রোগ থেকে মুক্তি দেবেন ইনশাআল্লাহ।’ নামাজে বাংলায় কোনো দোয়া পড়া যাবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নামাজে বাংলায় কোনো দোয়া পড়া যাবে না। নামাজে আপনারা আরবিতে দোয়া পড়বেন। এতে করে কিছু দোয়া শেখা হবে।’

দাঁড়ি রাখা প্রসঙ্গে মিজানুর রহমান বলেন, ‘পুরুষ হচ্ছে সিংহের মতো। সিংহের যেমন কেশ কেটে দিলে ভালো লাগবে না। তেমনি পুরুষকে ও দাঁড়ি না দেখলে ভালো দেখায় না। দাঁড়ি হলো রাসুলের বড় সুন্নাত। তাই কবরে যাওয়ার সময় আপনার ঘড়ি, কাপড়-চোপড় অন্য সকল সুন্নাহ সবই খুলে রাখা হবে। শুধুমাত্র দাঁড়ি আপনার সাথে কবরে যাবে। রাসুল (সা.) বলেছেন দাঁড়িকে ছেড়ে দাও। গোঁফকে খাটো করো। অনেক সেলিব্রেটিরাও দাঁড়ি রাখছেন।’ বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সর্ম্পক নিয়ে মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘বিবাহ ছাড়া সকল সর্ম্পক হারাম। শুকরের গোসত খাওয়া যেমন হারাম তেমনি মদ, জুয়াও হারাম। তেমনি বিবাহ বহির্ভূত সব সম্পর্ক হারাম। আপনি বিয়ে করে যৌবনকে উপভোগ করুন।’ মহিলাদের ঋতুবতী অবস্থায় হজ করতে পারবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ড.মিজানুর রহমান আজহারি বলেন, ‘মহিলারা হজে গিয়ে ঋতুবতী অবস্থায় পড়লে তাঁরা নামাজ আদায় ও তাওয়াফ ছাড়া সকল কিছুই করতে পারবেন।’

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: