আমরা সত্যিকার অর্থেই জনগণের পুলিশ হতে চাই: আইজিপি

   
প্রকাশিত: ১০:২১ অপরাহ্ণ, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, দেশের প্রতিটি থানাকে জনবান্ধব থানা হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। ব্রিটিশদের ভাবধারা পেছনে ফেলে আমরা সত্যিকার অর্থেই জনগণের পুলিশ হতে চাই। এই দেশটির মালিক জনগণ। তাই থানাগুলোকে সে ভাবেই গড়তে চাই। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে নেত্রকোনা শহরের কুড়পাড় এলাকায় সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ সব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, মুজিববর্ষে স্লোগান ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’। এই সময়ে প্রত্যেক উপজেলায় থানাগুলোতে চারটি করে হেল্প ডেস্ক খোলা বা চালু করা হবে। প্রতিবন্ধী সেবা ডেস্ক, বয়স্ক সেবা ডেস্ক, নারী-শিশুদের জন্য ডেস্ক এবং অসহায় নারী-শিশুদের জন্য ডেক্স। এ ছাড়া নারী ও শিশুরা বিপদে পড়লে তাদের জন্য একটি অ্যাপস চালু করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে পুলিশের ভূমিকা অনন্য। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জঙ্গিবাদ দমন করতে বেশ কয়েকজন পুলিশকে জীবন দিতে হয়েছে। সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের জরুরি হেল্প ডেক্স ৯৯৯ সার্ভিস দিন দিন খুবই জনপ্রিয় হচ্ছে। সার্ভিসটি চালুর পর এ পর্যন্ত ৫৮ লাখ মানুষকে সেবা দিয়েছে। এতে করে জনগণ খুব উপকৃত হয়েছে। তথ্য সত্য হলে ৯৯৯ এ কোনো ভোগান্তিতে পড়তে হয় না। জরুরি সেবা ৯৯৯ এর কল সেন্টারে ফোন গেলেই সহায়তার হাত বাড়ানো হয়। যেকোনো বিপদে পড়লে, সাইবার অপরাধের শিকার হলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে দ্রুত সেবা পাওয়া যায়। এই সেবা অব্যাহত থাকবে।

মতবিনিময়কালে ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ, নেত্রকোনার পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুনসী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) এস এম আশরাফুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ফকরুজ্জামান জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পরে আইজিপি বিকেলের দিকে পুলিশ লাইনসে জেলা পুলিশের বার্ষিক সমাবেশ, ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: