প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

আরও কমতে পারে তাপমাত্রা

   
প্রকাশিত: ১:৩৭ অপরাহ্ণ, ২৪ নভেম্বর ২০২০

দেশের বিভিন্ন এলাকায় শীতের প্রকোপ বাড়ছে। আবহাওয়া অধিদফতরের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, ‘রাতের তাপমাত্রা আজ আরও কমতে পারে কোথাও কোথাও। বুধবার থেকে রোদেলা আবহাওয়ায় দিন-রাতের তাপমাত্রা বাড়বে।’ হেমন্তের এ সময়ে হালকা বৃষ্টির প্রভাব কেটে যাওয়ার পর উত্তর-পশ্চিমের হাওয়ায় ঠাণ্ডার অনুভূতি বাড়ছে। কয়েক দিনের মধ্যে তা স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

বিশেষ করে দেশের উত্তর জনপদের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে এসেছে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ঘরে। সোমবার রাজশাহীর বদলগাছিতে ১০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস, যা দেশের সর্বনিম্ন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিনিয়র আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান।

রংপুরের তেতুঁলিয়ায় ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং রাজশাহী, ঈশ্বরদী, দিনাজপুর, চুয়াডাঙ্গা, শ্রীমঙ্গল ও রাজারহাটে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। ঢাকায় থার্মোমিটারের পারদ নেমেছিল ১৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত। আর দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে চট্টগ্রাম ও সন্দ্বীপে, ২৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আকাশ আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা থাকতে পারে। দিনের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট সুস্পষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপের রূপ নিয়ে দক্ষিণ পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে, ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিতে পারে। ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিলে এর নাম হবে ‘নিভার’। ওই নামটি ইরানের দেওয়া। তবে তিনি ওই ঘূর্ণিঝড়ে বাংলাদেশের তেমন কোনো সমস্যা হবে না বলে আশাবাদী।

তিনি বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিলেও এর প্রভাব বাংলাদেশে প্রড়বে না; ভারত-শ্রীলঙ্কার দিকে যাবে। নিম্নচাপটি বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে এখানে ঝড়-বৃষ্টি সেভাবে হবে বলে আমরা মনে করছি না।’

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: