ইউজিসির গনশুনানি বিরুদ্ধে রাবিতে ছাত্রলীগের গণস্বাক্ষর

   
প্রকাশিত: ১২:৫২ অপরাহ্ণ, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

কামরুল হাসান অভি, রাবি থেকে: উপাচার্যের বিরুদ্ধে ইউজিসির গনশুনানি করার ইখতিয়ার নেই দাবি করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্রলীগ গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর আয়োজন করেছেন। গত ২১ সেপ্টেম্বর বিকেল থেকে সপ্তাহব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিয় গ্রন্থাগারের পেছনে এ কর্মসূচির আয়োজন করে তারা।

এ বিষয়ে রাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাহাফুজ আলামিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৭৩ সালের অধ্যাদেশ অনুযায়ী উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান স্যারের ওপর কেবল আচার্য্য মহোদয় ব্যবস্থা নিতে পারেন। উপাচার্য স্যারকে ইউজিসির উন্মুক্তশুনানিতে ডাকার কোনো ইখতিয়ার নেই। তাই আমরা লক্ষ্য করছি সোবহান স্যারকে বিব্রত ও সম্মানহানি করতে এ অভিযোগ দায়ের, পক্ষাপাতিত্ব তদন্ত কমিটি গঠন ও শুনানির আয়োজন করা হয়েছে। আমরা এই কার্যক্রম বন্ধের দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে মিথ্যা অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

এদিকে গনশুনানির বিপক্ষে আন্দোলনকে অযৌক্তিক দাবি করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মোহাব্বত হোসেন মিলন বলেন, দুর্নীতিতে অভিযুক্তদের পক্ষে অংশ নেয়া তদন্ত কাজকে বাধাগ্রস্থ করা ছাড়া কিছুই নয়।

তিনি বলেন, যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান দুই কর্তাব্যক্তির ওপর দুর্নীতির অভিযোগ। সেক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডিতে এর ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব নয়। তাই শিক্ষামন্ত্রনালয় ইউজিসিকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছে। রাবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্য স্যার যদি নির্দোষ হন তার শুনানিতে যেতে আপত্তি কিসের? শুনানিতে অংশ না নেয়াই বুঝা যাচ্ছে তারা দুর্নীতিতে জড়িত। ৭৩ এর অ্যাক্ট যদি ভিসির গনশুনানির ক্ষেত্রে অবমাননা হয়। তাহলে বর্তমান প্রশাসনই তো রাকসু নির্বাচন না দিয়ে এই অ্যাক্ট অমান্য করছেন।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও নিয়োগ বাণিজ্যসহ ১৭টি বিষয়ে তদন্তের স্বার্থে গত ১৭ ও ১৯ সেপ্টেম্বর রাবি ভিসির সম্মতিতেই উন্মুক্ত শুনানির আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। প্রথমে উপাচার্য শুনানিতে অংশ গ্রহণের সম্মতি দিলেও পরে তদন্ত কমিটি আইনসিদ্ধ নয় দাবি করে শুনানিতে অংশ নেননি তিনি। অন্যদিকে অসুস্থতার কারন দেখিয়ে শুনানিতে যাননি উপ-উপাচার্যও।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: