প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ইউপি উপ-নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী ছাত্রদল নেতা নিখোঁজ

   
প্রকাশিত: ৬:৩৭ অপরাহ্ণ, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

আব্দুল ওয়াদুদ, (বগুড়া) থেকে: বগুড়ার ধুনট উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে মনোনয়পত্র জমা দিতে এসে মাসুদ রানা (৪০) নামে এক প্রার্থী রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হয়েছেন। তিনি উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে এবং বগুড়া জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে মাসুদ রানার রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি তার বাবা ইয়াকুব আলী নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মাসুদ রানা বুধবার সকালের দিকে ধুনট শহরে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। কিন্ত রাতে বাড়িতে ফিরে না আসায় তাকে অনুসন্ধান করতে থাকি। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা পর্যন্ত তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে। তাকে খুঁজে না পেলে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হবে।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৩ এপ্রিল নির্বাচনে উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে সাইফুল ইসলাম ফটিক নির্বাচিত হন। বার্ধক্যজনিত কারণে ২০২০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ কারণে ১৬ ফেব্রুয়ারী কালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ শুন্য ঘোষনা করা হয়। আগামী ২০ অক্টোবর ওই ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

উক্ত ভোটে মাসুদ রানা বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার জন্য ২৩ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। বুধবার দুপুরের দিকে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আসেন। সেখানে অনেকেই তাকে মনোনয়পত্র হাতে নিয়ে ঘোরাফেরা করতে দেখেছেন। কিন্ত তিনি মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি।

ধুনট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোকাদ্দেছ আলী বলেন, চেয়ারম্যান পদে ৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। এরমধ্যে ৫ জন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। অবশিষ্ট ২ জনের মধ্যে মাসুদ রানা বিএনপির প্রার্থী পরিচয় দিয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্ত তিনি কেন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন নাই, সে বিষয়টি আমার জানা নেই। ধুনট থানার অফিসার ইনাচর্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: