ইতালিতে পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশি তরুণীর প্রেম গড়াল বিয়েতে

   
প্রকাশিত: ৩:৪৭ অপরাহ্ণ, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: ইন্টারনেট

কথায় আছে প্রেম মানে না কোনো বাধা, ধনী-গরিবের কোনো ভেদাভেদ, ধর্ম-বর্ণ কিংবা দেশ। সে কথা আবারও প্রমাণিত হলো। বাংলাদেশি এক তরুণীকে প্রেম করে বিয়ে করেছেন ইতালির এক পুলিশ কর্মকর্তা। তাদের নাম সুমাইয়ারা ও দোমেনিকো তামবুররিনো। দীর্ঘদিনের প্রেমের ইতি টেনে অবশেষে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। ঘটনাটি ইতালির গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনা এখন টক অব দ্য টাউনে পরিণত হয়েছে। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দক্ষিণ ইতালির কাম্পানিয়া বিভাগের সালের্নো প্রভিন্সের মাইওরি পৌর এলাকায় তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

স্থানীয় গণমাধ্যমে জানা গেছে, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ২৫ বছর বয়সী তরুণী সুমাইয়ারা তুরিন সিটিতে পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে পড়ার সময় প্রথম পরিচয় হয় ইতালির ওই পুলিশ সদস্যের সঙ্গে। এর পর আল্পসের পাদদেশে প্রাচীন রাজধানী তুরিনে ধীরে ধীরে ভালো লাগা থেকে তাদের ভালোবাসা হয়। অতঃপর ১৪ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ ইতালির কাম্পানিয়া বিভাগের সালের্নো প্রভিন্সের মাইওরি পৌর এলাকায় তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

এর পর থেকে ইতালির বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশংসায় ভাসছেন ওই নবদম্পতি। ইতালি-বাংলাদেশি ভিন্ন দুই সংস্কৃতির মেরুতে অবস্থান করেও প্রেমের টানে আপন করে নিলেন দুজন দুজনাকে। বর ইতালীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ প্যারামিলিটারি পুলিশ ফোর্স ‘ক্যারাবিনিয়ারি’র মার্শাল হিসেবে কর্মরত উত্তর-পশ্চিম ইতালির পিয়েমন্তে বিভাগের তুরিন প্রভিন্সে।

এদিকে মহামারী করোনার কারণে বাংলাদেশের সঙ্গে যাত্রীবাহী ফ্লাইট বন্ধ থাকায় কনের পরিবারের কেউ-ই ইতালিতে আসতে পারেননি। স্থানীয়রা বলছেন, বাংলাদেশি তরুণীর ইতালির পুলিশকে বিয়ে করার ঘটনা এটিই প্রথম। বিয়ের অনুষ্ঠানে বর দোমেনিকো তার ইউনিফর্ম পরেন আর লাল রঙের শাড়িতে সাজেন বাংলাদেশি বধূ সুমাইয়ারা।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: