ইয়ারফোন, টিভিসহ একাধিক ডিভাইস দিয়ে আইওটি বাজার দখলের যুদ্ধে অপো

   
প্রকাশিত: ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ, ২২ অক্টোবর ২০২০

‘ওয়ান মোর স্টেপ’ প্রতিপাদ্যে নতুন সব চমকপ্রদ পণ্য নিয়ে আইওটি বাজার দখলের যুদ্ধে নাম লিখাল প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘অপো’। আজ বেশ কয়েকটি নতুন ডিভাইস উন্মোচন মাধ্যমে যাত্রা শুরু করল অপো। উন্মোচন করা পণ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে- অপো এনকো এক্স ট্রু ওয়্যারলেস নয়েজ ক্যানসেলিং ইয়ারফোন, অপো ওয়াচ আরএক্স, অপো টিভি এস১ এবং অপো টিভি আর১ সিরিজ; এর ফলে ব্র্যান্ডটির আইওটি ইকোসিস্টেম এক অনন্য মাত্রা যোগ করলো অপো।

নতুন এ ডিভাইসগুলোর উন্মোচন আইওটি বাজারে অপোর পোর্টফোলিও সমৃদ্ধকরণের কৌশলগত বিষয়ের ইঙ্গিত বহন করে। নানা ক্ষেত্রে একাধিক ডিভাইস ব্যবহারের মাধ্যমে স্মার্ট অভিজ্ঞতা প্রদানে কাজ করছে অপো। ব্র্যান্ডটি স্মার্টফোন, টিভি, ইয়ারফোন ও ঘড়ি এর মতো কোর এন্ট্রি লেভেল ডিভাইসগুলোর ধারাবাহিক উদ্ভাবনের মধ্য দিয়ে এ দক্ষতা অর্জন করেছে। অপোর অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও নান্দনিক ডিজাইনের সমন্বয়ে তৈরি পণ্যগুলো গ্রাহকদের ইন্টেলিজেন্ট ও উপভোগ্য জীবন-যাপনে সহায়তা করে।

এ নিয়ে চীনা মেইনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট ববি লিউ বলেন, অপো এনকো এক্স ট্রু ওয়্যারলেস নয়েজ ক্যানসেলিং ইয়ারফোন অডিও অভিজ্ঞতায় ভিন্নমাত্রা যোগ করবে।

শীর্ষস্থানীয় বৈশ্বিক হাই-ফাই ব্র্যান্ড ডায়না অডিও’র সাথে অংশীদারিত্বে অপো তাদের অপো এনকো এক্স ট্রু ওয়্যারলেস নয়েজ ক্যানসেলিং ইয়ারফোন নিয়ে এসেছে। ডায়নাঅডিও এ/এস এর চিফ অ্যাকুস্টিক স্পেশালিস্ট ড্যানিয়েল এমন্ট এ ইয়ারফোনটি টিউন করেছেন। তিনি বেশ কিছু ডায়না অডিও’র পুরস্কার জয়ী স্পিকারের অ্যাকুস্টিক ডিজাইনার। উদ্ভাবনী অ্যাকুস্টিক স্ট্রাকচারাল ডিজাইন ও এক্সক্লুসিভ ডিবিইই ৩.০ অ্যাকুস্টিক সিস্টেম ভিত্তিক অপোর এনকো এক্স ট্রু ওয়্যারলেস নয়েজ ক্যানসেলিং ইয়ারফোন ভারসাম্যপূর্ণ ও প্রাকৃতিক সাউন্ড উৎপাদনের সময় হাই-ফাই কোয়ালিটিসহ মিউজিকের সমৃদ্ধ ও সুনির্দিষ্ট টেকচার আনতে সহায়তা করবে। পাশাপাশি, ইয়ারফোনটির নয়েজ ক্যানসেলিং ফাংশন যেকোন পরিস্থিতিতে কাজ করবে এবং ট্রান্সপারেন্সি মোডে এএনসি ডুয়াল অ্যাক্টিভ নয়েজ ক্যানসেলেশন, মাল্টি-লেভেল নয়েজ রিডাকশন ম্যানেজমেন্ট এবং ন্যাচারাল কমিউনিকেশন রয়েছে। এছাড়াও, এ ইয়ারফোন ট্রিপল মাইক্রোফোন কল নয়েজ ক্যানসেলেশন এবং ওয়্যারলেস চার্জিঙ সমর্থন করে।

কোর এন্ট্রি-লেভেল আইওটি ডিভাইসের উন্মোচন অনুষ্ঠানে অপো দু’টি সিরিজের টিভি উন্মোচন করেছে। এর মধ্যে রয়েছে অপো টিভি এস১ এবং অপো টিভি আর১। এ টিভিগুলো তিনটি ভিন্ন মডেলে পাওয়া যাবে। ৬৫ ইঞ্চির অপো টিভি এস১ এ রয়েছে ফোরকে কিউএলইডি রেজ্যুলেশন কোয়ান্টাম ডট ওয়াইড গামুট ডিসপ্লে। এনটিএসসি ১২০ শতাংশ আল্ট্রা-ওয়াইড কালার গামুট দুর্দান্ত ও প্রাণবন্তভাবে গ্রাফিকস ও রঙের উপস্থাপনকে আরও সমৃদ্ধ করবে। ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ভ্যারিয়েবল রিফ্রেশ রেট (ভিআরআর) প্রাণবন্ত গেমিং অভিজ্ঞতা দিবে।

টিভির অ্যাকুস্টিক পারফরমেন্সের জন্য অপো ডায়নাঅডিও এর সাথে অংশীদারিত্ব করেছে। ফলে, টিভিগুলোতে ইমার্সিভ সিনেম্যাটিক সাউন্ড কোয়ালিটি পাওয়া যাবে। অপো টিভি এস১ এর চারপাশে রয়েছে ১৮ টি স্টেরিও স্পিকার, যার সর্বমোট শক্তি ৮৫ ওয়াট পর্যন্ত এবং যা ৫.১.২ চ্যানেল ও ডলবি অ্যাটমস সমর্থন করে।

অপো টিভি আর১ এর রয়েছে ৫৫-ইঞ্চি ও ৬৫-ইঞ্চির দু’টি মডেল, যেখানে রয়েছে কোয়াড-কোর প্রসেসর ও হাই-স্পিড ওয়াই-ফাই ৬। এছাড়াও, এ টিভি দেখার ক্ষেত্রে ব্যবহারকারী ইন্সট্যান্ট-অন ফিচারের ভিন্নধর্মী অভিজ্ঞতা লাভ করবে।

এছাড়াও, ব্যবহারকারীদের উন্নত অভিজ্ঞতাদানে অপো প্রথমবারের মতো ফার্স্ট রাউন্ড ডায়াল স্মার্টওয়াচ উন্মোচন করেছে। নতুন ডায়াল, স্পোর্ট মোড বিভিন্ন অ্যাপ সহযোগে ফার্স্ট রাউন্ড ডায়াল স্মার্টওয়াচ অপো ওয়াচ আরএক্স ও উন্নত সংস্করণের কালারওএস ওয়াচ ১.৫ উন্মোচন করেছে। লিগ অব লেজেন্ডস এর সাথে অংশীদারিত্বে অপো চীনে তিনটি ভিন্নধর্মী পণ্য উন্মোচন করেছে। এগুলো হলো: অপো ওয়াচ লিগ অব লেজেন্ডস লিমিটেড এডিশন, অপো ওয়াচ আরএক্স লিগ অব লেজেন্ডস লিমিটেড এডিশন ও অপো ফাইন্ড এক্স ২ লিগ অব লেজেন্ডস স্পোর্টস: ওয়ার্ল্ডস ২০২০ এডিশন।

’আমরা ইন্টারনেট অব এক্সপেরিয়েন্স কৌশলের ( দ্য নিউ অপো ইকোসিস্টেম) অধীনে নতুন কৌশলগত লক্ষ্য ঘোষণা করেছি,’ বলেন লিউ। তিনি আরো বলেন, ’এ কৌশলের মাধ্যমে অপোর ভবিষ্যতের পণ্যগুলো আমাদের নতুন কানেক্টেড ইকোসিস্টেমের অংশ হবে, যা আমাদের গ্রাহকদের নিশ্চিন্ত ও চমৎকার জীবনের অধিকারী করবে।’

অধিকতর কানেক্টেড ফিউচারের দিকে অপো বিশ্বজুড়ে ফাইভজি ও এআই প্রযুক্তি স্থাপনের মাধ্যমে ইন্টারনেট অব থিংসের যুগে এগিয়ে যাচ্ছে অপো, যেখানে বিভিন্ন ধরনের ডিভাইসের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি ব্র্যান্ড হিসেবে অপো ফোন তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্য তৈরি করতো, তবে এখন প্রতিষ্ঠানটি নতুন আইওটি ইকোসিস্টেম তৈরিতে তারা দীর্ঘমেয়াদে সেখানে মনোনিবেশ করেছে।

সামনের দিনগুলোতে অপো তিনটি প্রধান অ্যাপ্লিকেশন সিনারিওতে আলোকপাত করবে। এগুলো হলো: পার্সোনাল এন্টারটেইনমেন্ট, হোম অ্যাপ্লায়েন্স ও ফার্নিশিং এবং স্পোর্টস ও হেলথ। এগুলোকে কেন্দ্র করেই ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠানটি তাদের আইওটি পণ্য সাজাবে।

অপো ইএনএনও ডে ২০১৯ এ অপো প্রথমবারের মতো তাদের আইওটি কৌশল ঘোষণা করে, সেসময় প্রতিষ্ঠানটি কোর এন্ট্রি-লেভেল পণ্য ও একটি উন্মুক্ত আইওটি ইকোসিস্টেম প্রতিষ্ঠার ওপর আলোকপাত করে। ইন্টিগ্রেটেড অ্যাপ্লিকেশন সিনারিও তৈরি, ইমপ্রুভিং স্মার্ট এক্সপেরিয়েন্স ও অংশীদারদের সমন্বয়ের মাধ্যমে একটি ইতিবাচক ইকোসিস্টেম তৈরিতে অপো’র ‘ওয়ান মোর স্টেপ’ এর যাত্রা শুরু হয়েছে। গ্রাহকদের জীবন সহজ, হাতের স্পর্শসহ চমৎকার স্মার্ট জীবনের লক্ষ্যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যারের সমন্বয়ে গ্রাহকদের নতুন ইন্টেলিজেন্ট অভিজ্ঞতা প্রদানের মাধ্যমে সবজায়গায় কানেক্টিভিটি নিশ্চিতে সচেষ্ট রয়েছে অপো।

 

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: