প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

আরমান হোসেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

এই দেশে আইনের শাসন তার নিজ গতিতে চলে না: রুমিন ফারহানা

   
প্রকাশিত: ১১:২৯ অপরাহ্ণ, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

বিএনপির সংরক্ষিত আসনের সাংসদ রুমিন ফারহানা বলেছেন, এই দেশে আইনের শাসন তার নিজ গতিতে চলে না। চলে সরকারের গতিতে। আইন সরকারের গতিতে চলে বলেই সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের সময় ৭০ বারের মতো পেছানো হলো। যেকোনো ঘটনা ঘটায় সরকার যেভাবে চায়, ঠিক সেভাবেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে জনগুরুত্বপূর্ণ নোটিশের আলোচনায় তিনি কথা বলেন।

রুমিন ফারহানা বলেন, ‘২০১৯ সালে গড়ে প্রতিদিন একজনের বেশি মানুষ বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড খুব সম্ভবত বৈধ হতে যাচ্ছে। কারণ, গতকাল আমরা দেখেছি সরকার ও বিরোধী দল—দুই দলই বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের পক্ষে কথা বলেছে।’

সংসদে জনগুরুত্বপূর্ণ নোটিশের আলোচনায় রুমিন ফারহানা বলেন, ডাকসুর ভিপি নুরুল হক কেন বারবার মার খান—স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মতো তাঁরও একই প্রশ্ন। এর জবাব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে থাকার কথা। নুরুল হক বারবার মার খান, কারণ প্রথমবার মার খাওয়ার পর কোনো বিচার হয়নি।

রুমিন বলেন, ‘দেশে আইনের শাসনের অনুপস্থিতি ভয়াবহ মানবাধিকার লঙ্ঘনের কিছু নজির আমরা দেখতে পেলাম আইন ও সালিশ কেন্দ্রের সাম্প্রতিক রিপোর্টে। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ধর্ষণের সংখ্যা বেড়ে আগের বছরের চেয়ে দ্বিগুণ হয়েছে। ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয়েছেন ৭৬ জন। ধর্ষণের পর আত্মহত্যা করেছেন ১০ জন। ২০১৯ সালে গড়ে প্রতিদিন একজনের বেশি মানুষ বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে।’

বিএনপির এ নেত্রী বলেন, গত বছর গ্রেপ্তারের আগে নির্যাতনে মারা গেছে ৬ জন। গুলিতে নিহত হয়েছে আরও ১২ জন। এ রকম শারীরিক নির্যাতন, ধর্ষণ, অপহরণের পর ৪৮৭ শিশু নিহত হয়েছে। গণপিটুনিতে মারা গেছে ৬৫ জন। ১৪২ জন সাংবাদিক শারীরিক নির্যাতন, হামলা, হুমকির শিকার হয়েছেন।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: