প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

আরমান হোসেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

সংসদে পলক

এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় ৩৩ হাজার ১৮৮ জনকে প্রশিক্ষণ

   
প্রকাশিত: ৮:৪৭ অপরাহ্ণ, ৯ জুলাই ২০১৯

ফাইল ফটো

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেছেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উন্নয়ন ও অনুন্নয়ন খাতে অর্থবছরে বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রা আছে। বিশাল বেকার সমাজকে তথ্য প্রযুক্তির কর্ম বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) কর্তৃক নানা কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় ৩৩ হাজার ১৮৮ জনকে আন্তর্জাতিক মানের আইটি প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। যার মধ্যে ১০ হাজার ৮২১ জনের আইসিটি শিল্পে কর্মসংস্থান হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) জাতীয় সংসদে আনোয়ারুল আজীম (আনার) এর প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।

এসময় মন্ত্রী তার দপ্তর গৃহীন বিভিন্ন পদক্ষেপ বর্ণনা করে বলেন, এছাড়াও দেশের আইটি খ্রিস্টানের ৬৪২ জনকে মধ্যম স্তরের কর্মকর্তাদের এলআইসিটি প্রকল্পের সহযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (আইবিএ) এসিএমপি (অ্যাডভান্স সার্টিফিকেশন ফর ম্যানেজমেন্ট প্রফেশনালস) প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। ফেসবুকের সাথে যৌথভাবে ১৩ হাজার জনকে ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। অনলাইন কোর্স থেকে ২ হাজার জনের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করা হয়েছে এবং অনলাইন পোর্টাল বিডি স্কিল চালু করা হয়েছে। ২০০৯ হতে ২০১৯ সালের এ পর্যন্ত বিসিসি ও এর আওতাধীন ৬টি আঞ্চলিক কার্যালয়ে সর্বমোট ২৯ হাজার ৮৮১ জনকে আইসিটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। বিসিসি জাতিসংঘের এশিয়া প্যাসিফিক ট্রেনিং সেন্টার ফর ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ফর ডেভেলপমেন্ট এর সহযোগিতায় উইমেন আইটি ফ্রন্টিয়ার ইনিশিয়েটিভ কর্মসূচির আওতায় এ পর্যন্ত ৫৯১জন নারীকে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান পূর্বক উদ্যোক্তা হিসেবে আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সক্ষমতা উন্নয়নে এ পর্যন্ত ১৩৯১ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। প্রতিবছর প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জন্য চাকরি মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত ৩৮৩ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আইটি পেশাজীবীদের দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে বিসিসি কর্তৃক জাপানের সহায়তায় আইটি ইঞ্জিনিয়ার এক্সামিনেশন পরিচালনা করা হচ্ছে এবং এ পর্যন্ত ৫৩০ জন এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। তারা বর্তমানে বাংলাদেশে ও জাপানে কর্মসংস্থানের সুযোগ পাচ্ছে। জাপানিজ আইটি সেক্টরের উপযোগী করে আইটি ইঞ্জিনিয়ারদের দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ পর্যন্ত জাপানি ভাষা, জাপানের বিজনেস কালচার ও আইটি এর উপর ১৫৫ জনকে ৩ মাস মেয়াদী ইন্টার্নশিপ প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। যার মধ্যে ১১৮ জন এর জাপানে এবং ৩৭ জনের জাপান বেজড বাংলাদেশি কোম্পানিতে কর্মসংস্থান হয়েছে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: