টকশোতে বসে বড় বড় কথা বলে কিন্তু ধর্মই মানে না

‘কথা কিন্তু একটাই, চিল্লাইয়া মার্কেট পাওয়া যায় না’

   
প্রকাশিত: ১০:১৮ পূর্বাহ্ণ, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আমার বিরুদ্ধে মামলা হল এবং খারিজও হল। উনি (মামলাকারী) কিন্তু আলোচনায় আসতে চেয়েছিলেন। আদালত কিন্তু তার কথাগুলো আমলে নেয় নি। আমার কথা কিন্তু একটাই, চিল্লাইয়া মার্কেট পাওয়া যায় না। আমি বুঝাতে চাই, প্রতিহিংসা করে যত পদক্ষেপ গ্রহণ করুক না কেন, মানুষের কাছে তা গ্রহণযোগ্য হয় না।

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে দাওয়াতে ঈমানী বাংলাদেশ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও এই সময়ে আলোচিত এবং সমালোচিত ইসলামী বক্তা মুফতি মুহম্মদ গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, যারা আমাকে রোষানলে ফেলতে চায় তারা আমাকে নিয়ে বিভিন্ন ধরণের আজেবাজে বক্তব্য প্রদান করে। এটা প্রতিহিংসা হতে পারে। বাংলাদেশে অনেকে নিজেকে মুসলমান দাবি করছে, অথচ এমন অনেকে আছে যারা টকশোতে বসে বড় বড় কথা বলে কিন্তু ধর্মই মানে না। এরকম অনেক নজির কিন্তু আমাদের কাছে আছে।

ভাইরাল হওয়ার জন্য কি প্রস্তুতি নেন কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে তাহেরী বলেন, আপনি হাজারবার প্রস্তুতি নিলেও ভাইরাল হতে পারবেন না। এটা কিন্তু আরেকটা জগত।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমের আলোচিত-সমালোচিত এ বক্তা বলেন, আমি ধর্মীয় লাইনে পড়াশোনা করছি। ধর্মীয় চেতনায় বিষয়গুলো প্রচার করার জন্য আমি প্রতিনিয়ত ব্যস্ত থাকি। এই ব্যস্ততার ভেতরে তথ্যপ্রযুক্তির যুগে যে কোন নিউজ চোখে দেখে জানতে হয় না, স্বয়ংক্রিয়ভাবে কানে চলে আসে। যেহেতু আমি প্রতি রাতেই ওয়াজ-মাহফিল নিয়ে ব্যস্ত থাকি সেজন্য ফেসবুকে পড়ে থাকা অথবা ইউটিউবে নজরদারি রাখা অথবা দেখা আমার পক্ষে সম্ভব হয়ে ওঠে না।

তিনি বলেন, গতকাল একজন বলেছে, আমি নাকি ভাইরাল হওয়ার জন্য ওয়াজে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আসি। আসলে আমি ১৭ বছর ধরে ওয়াজ করছি। ভাইরাল হওয়ার জন্য অথবা একজন ব্যক্তির কথা মুখে মুখে নিয়ে আসা সাধারণ বিষয় নয়। এটা চাইলেই সম্ভব হয় না।

তিনি আরও বলেন, ভাইরাল হওয়া শব্দগুলো কয়েক মাসের। আগে ১৬ বছর আমি কোরআন-সুন্নাহর ওয়াজ করেছি। এর মাধ্যমেই সারাবিশ্বে আমার অনেক ভক্ত আছে। তারা আমার ওয়াজ শুনে অত্যন্ত উৎসাহ প্রদান করেছে। এ পরিচিতিটা কিন্তু শুধুমাত্র তিনটা অথবা চারটা শব্দ ভাইরাল হওয়ার জন্য হয় নি। হয়তো আমার একটা পরিচিতি মাঠে ছিল সেজন্য আমার মুখ থেকে যে কথাগুলো বের হয়েছে সেই কথাগুলো অনেকে ভাইরালের চোখে দেখেছে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: