প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

করোনার মধ্যেই থানায় আয়োজন করে পুলিশের ভূরিভোজ

   
প্রকাশিত: ১:২৪ অপরাহ্ণ, ২৭ মে ২০২০

প্রাণঘাতী করোনার ভয়াবহতা দিন দিন বেড়েই চলেছে বাংলাদেশে। প্রতিদিন রেকর্ড হারে বাড়ছে দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। দেশের মানুষকে নিয়ম মেনে বাসায় রাখার জন্য প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে যাচ্ছেন দেশের আইন শৃঙ্খলাবাহিনী। কিন্তু দেশবাসীকে পথ দেখানো সেই আইন শৃঙ্খলাবাহিনী যখন নিয়ম নীতি তোয়াক্কা করে না, তখন তা দেশবাসীর জন্য নিঃসন্দেহে খারাপ উদাহরণ সৃষ্টি করে। মাদারীপুরে ঘটেছে এমনি এক ঘটনা। মাদারীপুর সদর থানায় হয়েছে আয়োজন করে ভূরিভোজের অনুষ্ঠান। আয়োজনে অংশ নিয়েছেন খোদ জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান। শুধু তাই নয় প্রীতিভোজে অংশ নিয়েছেন জেলার রাজনৈতিক নেতা, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ীরাও। ঈদের দিন সোমবার (২৫ মে) দুপুরে সদর থানার সামনে প্যান্ডেলে বসিয়ে এই অনুষ্ঠান করা হয়। বিষয়টি এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ বিভাগের এমন কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

জানা যায়, গত ১৫ মে মাদারীপুর জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটি ঈদুল ফিতর উদযাপন সংক্রান্ত একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় করোনা প্রতিরোধকল্পে নানা পদক্ষেপ হাতে নেয়া হয়। সেখানে বলা হয়, ঈদে কোন ধরণের বেড়ানো ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যাবে না। অথচ সেই পদক্ষেপ আমলেই নেয়নি মাদারীপুর সদর থানা পুলিশ। ঈদের দিন দুপুর একটার দিকে সদর থানার সামনে প্যান্ডেল বসিয়ে শতাধিক লোকের অংশগ্রহণে হয় প্রীতিভোজ। মানেনি কেউ সামাজিক দূরত্বের নির্দেশিকা। এ ব্যাপারে মাদারীপুর সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-এর সভাপতি খান মো. শহীদ বলেন, ‘সরকারী পর্যায়ে করোনা ভাইরাসরোধকল্পে যেসব নিয়ম-নীতি নির্ধারণ করেছে, সেটা ব্যক্তি হোক বা প্রতিষ্ঠান হোক তাদের মানা উচিত। যদি কেউ নিয়ম না মেনে অনুষ্ঠান করে সেটা অবশ্যই নিয়ম ভঙ্গের শামিল। তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা উচিত।’ ভুরিভোজ আয়োজনের বিষয় মাদারীপুর সদর মডেল থানার ওসি মো কামরুল হাসান মিঞা বলেন, ‘ঈদের দিন আমাদের সকল সদস্যদের নিয়ে প্রীতিভোজের আয়োজন করি। সেখানে কয়েকজন ব্যক্তিবর্গ আমাদের শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিল, তাদেরও আমরা প্রীতিভোজের অংশগ্রহণ করিয়েছি। এটা নিয়ে আমি আর কোন কথা বলতে চাই না।’

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: