করোনায় লাতিন আমেরিকায় প্রাণ দিয়েছে ২ লাখ মানুষ

   
প্রকাশিত: ১০:৩৬ অপরাহ্ণ, ২ আগস্ট ২০২০

ছবি: ইন্টারনেট

যুক্তরাষ্ট্রের পর ব্রাজিল ও মেক্সিকোতে করোনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে। দেশ দুটি লাতিন অঞ্চলের। গোটা লাতিন আমেরিকায় করোনায় মৃতদের ৭০ শতাংশই এই দুই দেশের। উভয় দেশই করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে। বাকি দেশগুলোর অবস্থাও ভালো না।

অঞ্চলটির দেশগুলোর অর্থনীতি মারাত্মক সংকটের মুখে। আর এই সংকট থেকে উত্তরণের জন্য যথাযথ সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ না করেই খুলে দেওয়া হয়েছে বেশিরভাগ অর্থনৈতিক কার্যক্রম। আর তাতে সংক্রমণের যে ঊর্ধ্বগতি দেখা দিয়েছে তা আশঙ্কাজনক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও অঞ্চলটির দেশগুলোকে সতর্ক করেছে। গত সপ্তাহে ব্রাজিলে রেকর্ড সর্বোচ্চ ১ হাজার ৫৯৫ জন কোভিড-১৯ রোগী মারা যান। শনিবারও দেশটিতে ১ হাজার ৮৮ জনের প্রাণহানি হয়েছে। একইদিনে মেক্সিকোতে প্রাণ হারিয়েছেন ৭৮৪ জন।

প্রথমবারের মতো দেশটিতে একদিনে ৯ হাজারের বেশি মানুষ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশগুলোও করোনার বিস্তার ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করেও ভাইরাসটির সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারা পেরুতে গতদিনে কোভিড-১৯ আক্রান্ত আরও ১৯১ জন মারা গেছে। কমবেশি মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে বাকি দেশগুলোতেও। এনিয়ে লাতিন আমেরিকার দেশগুলোতে করোনায় মৃতের সংখ্যা দুই লাখ ছাড়িয়েছে।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: