করোনায় শিক্ষকের মৃত্যু, সন্তান নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন মা!

   
প্রকাশিত: ১২:২৬ অপরাহ্ণ, ৮ জুলাই ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শিক্ষক স্বামীর মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টার পরই দুই শিশু কন্যাকে নিয়ে রেললাইনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন স্ত্রী। গুরুতর আহত অবস্থায় মা ও দুই সন্তানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) কোলকাতার নিউ জলপাইগুড়ি রেল স্টেশনে এই ঘটনা ঘটে। ওই মহিলার নাম সীমা মাহাতো (৩৫)। তাঁর দুই শিশুকন্যা প্রাপ্তি (৪) এবং ঋষিতা (২)। জলপাইগুড়ি চম্পাসারির নিবেদিতা রোডের বাসিন্দা তারা।

জানা গেছে, সীমার স্বামী খড়িবাড়ির রামজীবন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। স্কুল বন্ধ থাকায় তিনি বাড়িতেই ছিলেন। জুলাই মাসের শুরু থেকে সর্দি জ্বরের মতো উপসর্গ দেখা যায় তাঁর শরীরে। স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি শিলিগুড়ি মহকুমা হাসপাতালে যান। সেখানে তাঁকে ভর্তি করা হয় এবং পরে কোভিড পরীক্ষার পর ৩ জুলাই তাঁর কোভি়ড পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তাঁকে কোভিড ওয়ার্ডে স্থানান্তরিত করা হয়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই শিক্ষকের হৃদপিন্ডের সমস্যা ছিল। তাঁর শ্বাসকষ্ট বাড়তে থাকে। শ্বাসকষ্টের জন্য তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। সোমবার গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। ভোর বেলা হাসপাতাল থেকে স্বামীর মৃত্যুর খবর পান সীমা। শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনার জানিয়েছে, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে নিরাপত্তা রক্ষীদের নজর ফাঁকি দিয়ে নিউজলপাইগুড়ি স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজ থেকে দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে রেল লাইনে ঝাঁপ দেন সীমা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের তিন জনকে মাটিগাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: