প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

করোনায় সুখবর, ভ্যাকসিন বাজারে আসার সময় জানাল জার্মান প্রতিষ্ঠান

   
প্রকাশিত: ১:৩৬ অপরাহ্ণ, ১২ জুলাই ২০২০

করোনাভাইরাসের বহুল প্রতীক্ষিত ভ্যাকসিন আসছে এ বছরের অক্টোবরেই। এমনটাই বলছে জার্মান জৈবপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান বায়ো এন টেক ও নিউইয়র্কের ওষুধ উৎপাদনকারী ফাইজার ইন কর্পোরেশন। প্রতিষ্ঠান দুটি করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে কাজ করছে। এদিকে আগামী ১৫ আগস্টের মধ্যে ভারতের ভ্যাকসিন আসার কথা শোনা গেলেও আগামী বছরের আগে তা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন সরকারি কর্মকতারা।

নিউইয়র্কের ওষুধ উৎপাদনকারী ফাইজার ইনকরপোরেশনের সঙ্গে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ভ্যাকসিন তৈরিতে কাজ করছে জার্মান জৈবপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান বায়ো এন টেক। প্রতিষ্ঠান দুটি চলতি বছরের শেষে প্রতীক্ষিত ভ্যাকসিন বিস্তৃত আকারে বিশ্বব্যাপী সরবরাহের জন্য নিয়ন্ত্রকদের অনুমোদন পাওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। বায়ো এন টেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইউগুর শাহিন ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, এ বছরের মধ্যেই ভ্যাকসিন বাজারে আনার ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছিলেন তা অর্জনযোগ্য বলে মনে হচ্ছে। বায়ো এন টেক জানিয়েছে, তাদের ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত ধাপ বা তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা এ মাসের শেষেই শুরু হচ্ছে। এ পরীক্ষায় ৩০ হাজার মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। এ পরীক্ষার ফল চলতি বছরের মধ্যেই জানা যাবে। এরপর প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্যাকসিনটির অনুমোদন চাওয়া হবে। এদিকে টাইম ম্যাগাজিনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফাইজারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) অ্যালবার্ট বোরলাও ঠিক একই কথা বলেছেন। বোরলা বলেন, তারা আশা করছেন, আগামী অক্টোবর নাগাদ ভ্যাকসিনের জন্য ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের কাছ থেকে অনুমোদন পেয়ে যাবে। সেপ্টেম্বরে তারা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার ফল পাবেন।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: