প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু, হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়ে গেল স্বজনরা

   
প্রকাশিত: ১০:১৩ পূর্বাহ্ণ, ৫ জুন ২০২০

করোনার লক্ষণ নিয়ে বৃহস্পতিবার (৪ জুন) রাতে নেত্রকোণার মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সন্দু মিয়া (৬০) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মারা যাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই পালিয়ে গেল তার স্বজনরা। নিহত সন্দু মিয়া আটপাড়া উপজেলার সুখারী ইউনিয়নের দেবাদ্বর গ্রামে মৃত রুস্তম আলীর ছেলে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহতের লাশ হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডের ১৪ নং সিটে পড়ে রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে এ রোগীকে করোনার উপসর্গ সন্দেহে মদন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা তাকে ময়মনসিংহ রেফার্ড করেন। কিন্তু তার অর্থনৈতিক সমস্যার কারণে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়নি। পরে রাত ১২ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। নিহতের সৎ মা বেগম আক্তার জানান, কয়েক দিন ধরে তার জ্বর ছিলো। কাল বিকেলে পাতলা পায়াখানা হওয়ায় মদন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সজিব সাইফুল্লাহ জানান, রোগীর ফুসফুসে সমস্যা-জনিত কারণে শ্বাসকষ্ট ছিল। অবস্থা খারাপ দেখে তাকে ময়মনসিংহ প্রেরণ করা হয়। কিন্তু পরিবারের লোকজন তাকে নিয়ে যায় নি। রাতে তিনি হাসপাতালে মারা যান।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: