কলেজে এসে ছাত্রীদের মাসিকের প্রমাণ দিতে হল

   
প্রকাশিত: ৭:২০ অপরাহ্ণ, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মেয়েদের ঋতুস্রাব বা মাসিক একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। এ নিয়ে হেনস্থা হলেন কলেজের ৬৮ জন ছাত্রী। বাথরুমে গিয়ে শিক্ষিকার সামনে তাদের প্রমাণ দিতে হয়েছে তাদের মাসিক হয় নি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের গুজরাটে। ঘটনার দিন কলেজে আসার পর ৬৮ জন ছাত্রীকে ক্লাসরুম থেকে শিক্ষিকারা টয়লেটে নিয়ে যান। তারপর সেখানে নিজের অন্তর্বাস খুলে শিক্ষিকাকে প্রমাণ দেখাতে হয়েছে। গুজরাটের ভুই শহরের কলেজে এ ঘটনা ঘটেছে। কলেজটি পরিচালনা করে কট্টরপন্থী স্বয়ামিনারায়ণ গোষ্ঠী।

কলেজের অধ্যক্ষের কাছে ছাত্রী হোস্টেলের এক কর্মী নিয়মভঙ্গের অভিযোগ জানানোর পর ছাত্রীদের এভাবে পরীক্ষা করা হয়। মাসিক চলাকালীন ছাত্রীদের ক্লাসে যাওয়া নিষিদ্ধ। হোস্টেলের ওই কর্মী এই নিয়মভঙ্গের অভিযোগ করেন। কলেজে ছাত্রীদের অনুসরণীয় নিয়মের মধ্যে আরো যা আছে: মাসিক চলাকালীন ছাত্রীরা মন্দিরে, রান্নাঘরে প্রবেশ করতে পারবে না। এমনকি অন্যদের থেকে তারা আলাদা স্থানে বসবে। খাবার সময়েও তারা আলাদা বসবে। নিজেদের খাবারের পাত্র নিজেরা পরিষ্কার করবে। এমনকি ক্লাসরুমেও পেছনের বেঞ্চে বসবে।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: