প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

গুঁতোয় আহত ১১

কোরবানির সময় লাফিয়ে ওঠা সেই মহিষটিকে এখনও নিবৃত্ত করতে পারেনি পুলিশ

   
প্রকাশিত: ১২:১৫ অপরাহ্ণ, ১৩ আগস্ট ২০১৯

টাঙ্গাই‌লের ঘাটাইলে কোরবা‌নির জন্য প্রস্তুতের সময় লা‌ফি‌য়ে উঠা সেই ক্ষিপ্ত মহিষটিকে এখনও নিবৃত্ত করতে পারেনি পুলিশ।

সোমবার (১২ আগস্ট) থেকে আজ মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) এখন পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়েও সেই কোরবানির মহিষটিকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়নি। এরআগে সোমবার ওই মহিষের শিংয়ের গুঁতোয় ১১ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা ও জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে ওই মহিষ ভুঞাপুর উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের নিকলা বিলে অবস্থান করছে।

সোমবার ঘাটাইল উপজেলার যুগিহাটি থেকে ভুঞাপুর উপজেলার কাগমারি পাড়ার একটি ধানের চরায় অবস্থান করছিল। মহিষটিকে নিবৃত্ত করতে ঢাকা হতে প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তারা ভুঞাপুরেও উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

ভুঞাপুর থানার উপ-পরিদর্শক শামছুল ইসলাম জানান, ঈ‌দ উপল‌ক্ষে যু‌গিহা‌টি গ্রামের আরিফুল সরকারের বাড়িতে এক‌টি ম‌হিষ ক‌য়েকজন মি‌লে কোরবা‌নি দেওয়ার জন্য কিনেছিলেন। কোরবানি দেওয়ার সময় হঠাৎ লাফিয়ে উঠে। প‌রে সেখা‌নে থাকা একই প‌রিবা‌রের পাঁচজন‌সহ ১১ জনকে আহত ক‌রে ম‌হিষ‌টি ভুঞাপুর উপ‌জেলার কাগমা‌রি পাড়ার চরে চ‌লে যায়।

পরে ওই মহিষটিকে নিবৃত্ত করতে সন্ধ্যার দিকে এক রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়। এতে মহিষটি সরে গেলে গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এরপর হাজারো উৎসুক জনতা চলে আসলে পুনরায় গুলি করা সম্ভব হয়নি। পরে মহিষটি সারারাত পর কাগমারি থেকে অলোয়া ইউনিয়নের নিকলা বিলে চলে আসে।

তিনি আরো জানান, মহিষটিকে নির্বৃত্ত করতে ঢাকা হতে প্রাণিসম্পদের একটি টিম ভুঞাপুরে আসছে। তারা ঘটনাস্থলে আসার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: