প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ফরিদুল ইসলাম রঞ্জু

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে আসছে ধলা পাহাড়

   
প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, ১৩ জুলাই ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ের বাজারে কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে আসছে এক হাতি আকৃতির ষাঁড় ধলা পাহাড়। গত চার বছর ধরে ঠাকুরগাঁও নিশ্চিতপুর হ্যাডসে লালন-পালন হচ্ছে এই ধলা পাহাড়।কোরবানির ঈদে এটি বাজারে নিয়ে আসবেন বলে জানান উদ্যোক্তা।কোরবানির ঈদকে ঘিরে এখন পর্যন্ত পশুর বাজার মন্দা থাকলেও উদ্যোক্তা মাসুমা খানম মিষ্টি আশা করেন লম্বায় ৮ ফিট ১০ ইঞ্চি ও উচ্চতায় ৫ ফিট ৬ ইঞ্চির এই গরুর গোস্ত হবে ১ টন আর বিক্রি হবে ১০ লক্ষ টাকায়।মাসুমা খানম জানান, ধলা পাহাড়কে তৈরী করতে প্রতিদিন ৪/৫ কেজি ভুসি,২ কেজি খৈল,৩.৫০ কেজি ভুট্টার গুড়া, ১.৫০ কেজি ছোলা লাগছে।

তবে ধলা পাহাড়কে বাজারে তুলবেননা বলেও তিনি জানান। হ্যাডস থেকেই সেটি বিক্রি করবেন।এদিকে ধলা পাহাড়কে কেনার জন্য ইতিমধ্যে ক্রেতারা যোগাযোগ করছেন বলে মাসুমা জানান।২০১৮ সালে সারা দেশে সেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তার পুরস্কার পাওয়া এই মাসুমা খানম নতুন কিছু তৈরী করে মানুষকে চমকে দিতে অভ্যস্ত। মজার ব্যাপার ঠাকুরগাঁওয়ের কোন বাজারে ইতিপূর্বে এত বড় গরু কখনও তৈরী হয়নি বা বিক্রি হয়নি।মাসুমা খানম জানান,২০১২ সালে তিনি প্রথম হ্যাডসে চিজ ফ্যাক্টরি গড়ে তোলেন সৃষ্টি কর্তার অশেষ কৃপায় তার আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।তার তৈরী চিজ এখন সারাদেশে বাজারজাত হচ্ছে।তার পাশাপাশি তিনি তৈরি করেছেন গরু ও ছাগলের খামার।তার খামারে এখন কাজ করে কয়েকটা পরিবার চলে।ধলা পাহাড় জন্মের পর থেকেই তার ইচ্ছে ছিল এটাকে বিশেষভাবে তৈরি করবেন।আর হয়েছেও তাই।এই ধলা পাহাড় নিয়মিত দেখাশোনার জন্য রয়েছেন দুজন কর্মচারী আমিনুল ও হেমন্ত।

আমিনুল বলেন, ধলা পাহাড়ের মা প্রতিদিন ১৬ লিটার দুধ দিত।ধলা পাহাড় মায়ের প্রথম সন্তান।জন্মের পরই ওর মধ্যে একটু বাড়তি গ্রোথ দেখা দেয়। এরপর মালিক সিদ্ধান্ত নেন এটাকে বিশেষভাবে বড় করবেন।তারা আশা করেন এটাকে কমপক্ষে ১০ লক্ষ টাকায় বিক্রি করবেন।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: