প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কোয়ারেন্টাইনে প্রবাসীর মৃত্যু, ৯ বাড়ি লকডাউন

   
প্রকাশিত: ১১:১৮ অপরাহ্ণ, ২ এপ্রিল ২০২০

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় ওমান ফেরত প্রবাসীর দাফন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) বিকেলে তাকে স্বাস্থ্য বিভাগ, জেলা প্রশাসন, সামরিক বাহিনীর সদস্য এবং জনপ্রতিনিধির উপস্থিতিতে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। মান্নারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু হেনা আজিজ বলেন, বিকেল ৫টায় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা সুরক্ষা পোশাক পরিধান করে সরকার নির্দেশিত নিয়মে তাকে দাফন করেছেন।

সিভিল সার্জন মো. শামছ উদ্দিন বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম মেনে তাকে দাফন করা হয়েছে। নিহতের করোনা সংক্রমণ হয়েছে কিনা তা জানার জন্য প্রয়োজনীয় নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের ৪৯ বছর বয়সী ওই ওমান প্রবাসী মারা যান সকাল সাড়ে সাতটায়। তিনি নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন।

দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও নিহতের স্বজনরা জানান, তিনি গত ১৮ মার্চ ওমান থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে দেশে আসেন। দেশে আসার পর থেকে তিনি স্থানীয় স্বাস্থ্যকর্মীর মাধ্যমে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। আজ তার হোম কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিলো।

সকালে তার তীব্র পেটে ব্যথা শুরু হয় এবং তিনি মারা যান। মান্নারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. সাব্বির আহমদ বলেন, জয়নাল গত দুই বছর যাবৎ ওমান প্রবাসী ছিলেন। ১৮ মার্চ তিনি বাড়িতে আসেন। এসময় তার কোন অসুস্থতা ছিলো না। তবে পরিবারের লোকজন জানায় তিনি পেটের পীড়ায় আক্রান্ত ছিলেন।

জালালপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচ সিপি মো. কামাল মিয়া বলেন, তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থ ছিলেন। আজ সকালে তিনি মারা যান। দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, তার শরীরে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কোনো লক্ষণ উপসর্গ ছিলো না। পেটের পীড়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন লিভার রোগের কোন কাগজপত্র নিহতের পরিবারের কাছে নেই। তার ধারনা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন।

দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া সুলতানা বলেন, জালালপুর গ্রামে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ওমান ফেরত প্রবাসীর মৃত্যুর ঘটনায় গ্রামের ৯টি পরিবারের ৭০ জন সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তার নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: