প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

কোয়ারেন্টিনে মালয়েশিয়া প্রধানমন্ত্রীর কোরআন পাঠ

   
প্রকাশিত: ২:৪৫ অপরাহ্ণ, ৬ অক্টোবর ২০২০

মালয়েশিয়ায় রেকর্ড সংখ্যক ৪৩২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়েছে, যা দেশটিতে করোনা সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এখনও পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। আক্রান্তদের মধ্যে ৩ জন বাইরে থেকে আসা বাকি ৩২৯ জন মালয়েশিয়ার বিভিন্ন রাজ্যের। সোমবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

এদিকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন আবারও স্বেচ্ছায় নিজ গৃহে কোয়ারেন্টিনে গেছেন। সরকারের ধর্মমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি ঝুঁকি এড়াতে কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কোয়ারেন্টিনের সময়গুলো কোরআন তেলাওয়াত করে কাটাচ্ছেন তিনি।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিনের কোরআনের তেলাওয়াতের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। ভিডিওতে মহিউদ্দিন ও তাঁর পাশে থাকা স্ত্রীকে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করতে দেখা যায়। এ সময় মহিউদ্দিন সুরা ওয়াকিআহ পাঠ করছিলেন।

কাতারের রাষ্ট্রদূত ফাহাদ কাফুদ টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেন, ‘মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন স্ত্রীর সঙ্গে পবিত্র কোরআনের সুরা ওয়াকিআহ তেলাওয়াত করছেন।’

গত সোমবার (৫ অক্টোবর) তানসেরি মহিউদ্দিন জানান, সব পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ থাকলেও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতে তিনি সেল্ফ কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।’ কোয়ারেন্টিনে থেকেও ঘর থেকে সব কাজ করেন এবং ভিডিওতে সব মিটিংয়ে সংযুক্ত থাকেন।

মহিউদ্দিন ইয়াসিন বলেন, ‘গত এপ্রিল মাস থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতি দুই সপ্তাহ পর পর করোনা পরীক্ষা করছি। এবং সব পরীক্ষায় আমার করোনা নেগেটিভ আসে। গত সপ্তাহের তিন দিন তিন বার কোভিড পরীক্ষা করি এবং তখনও নেগেটিভ আসে।

গত শনিবার (৩ অক্টোবর) মন্ত্রী পরিষদের করোনা বিষয় এক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে ইসলাম ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী জুলফিকার মাহমুদ আল বাকরি উপস্থিত ছিলেন। গতকাল সোমবার জুলফিকার মাহমুদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর আসে। বৈঠকে উপস্থিত সবার করোনা পরীক্ষা করা হয় এবং সবাইকে কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার সাবাহ শহর নির্বাচনী প্রচারণার কারণে করোনা সংক্রমণের প্রধান স্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়। দেশটি গতকাল পর্যন্ত করানায় আক্রান্ত ১২ হাজার ৮১৩জন এবং মারা যায় ১৩৭জন। সূত্র : আল জাজিরা ও দি স্ট্র্যাইটস টাইমস।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: