প্রচ্ছদ / খোলা কলাম / বিস্তারিত

গণমাধ্যমের স্বাধীনতার সংকট কিছু সাংবাদিকদের দালালি!

   
প্রকাশিত: ৭:২৩ অপরাহ্ণ, ১৬ অক্টোবর ২০২০

নুরুল হক নুর: প্রধানমন্ত্রী যখন দেশের বহুল প্রচারিত দু’টি পত্রিকা -প্রথম আলো ও ডেইলি স্টার নিয়ে সংসদে বিরূপ মন্তব্য করে, প্রধানমন্ত্রী-পুত্র জয় যখন প্রথম আলো বর্জনের ডাক দেয়, এই সরকার যখন ‘চ্যানেল ওয়ান’, ‘দিগন্ত’ , ‘ইসলামিক টিভি’, ‘আমার দেশ’ বন্ধ করে হাজার হাজার গণমাধ্যমকর্মীর জীবিকা হুমকিতে ফেলে দিয়েছিলো, তখন এই তথাকথিত সাংবাদিক নেতাদেরকে সরব হতে দেখেছিলেন?

সরকার যখন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মতো গণবিরোধী আইন করে স্বাধীন গণমাধ্যম ও মুক্ত সাংবাদিকতার উপর বিধিনিষেধ আরোপ করলো, তখন গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও সাংবাদিকদের সুরক্ষায় এই সাংঘাতিক নেতাদের কোন জোরালো ভূমিকা দেখেছেন?

নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময় ছাত্রলীগ, যুবলীগের হামলায় এএফপি’র ফটোগ্রাফার, প্রথম আলোর সাংবাদিক সহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিক আহত হয়েছিলেন। আল-জাজিরায় সাক্ষাৎকার দেওয়ায় আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে নির্যাতন করা হয়েছিলো। তখন এই সাংবাদিক নেতাদের কোন প্রতিক্রিয়া দেখেছেন?

করোনাকালীন সময়েও কয়েকজন সম্পাদকসহ ৭৪ জন সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ‘ গণবিরোধী’ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানিমূলক মামলা করা হয়েছে, অনেককে গ্রেফতার করেছে। প্রধানমন্ত্রীর সাবেক একজন বিশেষ সহকারী,বর্তমান এমপির বিরুদ্ধে লেখায় সাংবাদিক কাজলকে রাষ্ট্রীয় গুম বাহিনী দিয়ে তুলে নেওয়া হলো, এখনো কারাগারে তিনি। সাংবাদিকদের উপর এই অত্যাচার, দমন-পীড়ন নিয়ে ঐ দলকানা সাংবাদিক নেতাদের কোন প্রতিক্রিয়া দেখেছেন?

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি দুটি গণমাধ্যমে কর্মরত ছিলেন। সাগর-রুনি হত্যার হত্যার ৮ বছর পার হয়েছে। সাগর-রুনি হত্যার বিচারের দাবিতে এদেরকে সোচ্চার হতে দেখেছেন?

এই যে নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিক ইলিয়াসকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে! ইলিয়াস হত্যার বিচারের দাবিতে কোন সাংবাদিক সংগঠন বা সাংবাদিক নেতাদের প্রতিবাদ করতে দেখেছেন?

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা বা সাংবাদিকদের সুরক্ষায় যদি সাংবাদিক সংগঠনগুলো জোরালো ভূমিকা নিতে না পারে! তাহলে সাংবাদিক সংগঠনগুলো বা নেতাদের কাজ কি?

সাংবাদিক সংগঠনের নামে রাজনৈতিক দলের তোষামোদি করে এমপি, মন্ত্রী, সরকারের উপদেষ্টা,চ্যানেলের লাইসেন্স নেওয়া? ৭১ টিভির মতো পক্ষপাতদুষ্ট,ইসলাম বিদ্বেষী, দেশের সামাজিক-সাংস্কৃতিক মূল্যবোধের পরিপন্থী গণমাধ্যমের পক্ষে দালালি করা?

আর আমি কোন চ্যানেল দেখবো বা বর্জন করবো সেটা একান্তই আমার ব্যক্তিগত বিষয় ও গণতান্ত্রিক অধিকার। সেটা নিয়ে তথাকথিত সাংবাদিক নেতাদের কথা বলার কোন যৌক্তিকতা আছে? (লেখাটি ডাকসুর সাবেক ভিপি নরুল হক নুরের ফেসুবক থেকে সংগৃহীত)।

(খোলা কলামে প্রকাশিত সকল লেখা একান্তই লেখকের নিজস্ব মতামত )

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: