প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ঘরে ঢুকে ছাত্রীর জামা-কাপড় ছিঁড়ে ধর্ষণের চেষ্টা, চাচাত ভাই ধরা

   
প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, ৩১ অক্টোবর ২০২০

ছবি: প্রতীকী

ঘরে ঢুকে দশম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে পুলিশ ওই ছাত্রীর চাচাতো ভাইকে আটক করেছে। শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। আটক পিয়াস (২০) নোয়াখালীর চাটখিলে উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সোবহান বাজার সংলগ্ন দক্ষিণ সাজুনি বাড়ির আনাল হকের ছেলে। এর আগে, শুক্রবার সন্ধ্যায় সোবহান বাজার সংলগ্ন একই বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ শুক্রবার রাত ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, তিনি একজন ব্যবসায়ী। সন্ধ্যার দিকে তিনি ব্যবসার কাজে বাজারে ছিলেন। তার স্ত্রী হাঁস-মোরগকে খোঁয়াড়ে ঢুকানোর জন্য ঘরের বাহিরে ছিলেন। ওই সময় তার মেয়ে (১৬) দশম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রী ঘরে একা থাকার সুবাধে তার ছোট ভাইয়ের ছেলে মো. পিয়াস (১৭) ঘরে ঢুকে তার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। মেয়ে বাঁধা দিলে তাকে মারধর করে তার পরেনের জামা কাপড় ছিঁড়ে ফেলে। একপর্যায়ে মেয়ের চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে অভিযুক্ত যুবক পালিয়ে যায়। পরে আমার পরিবারের সদস্যরা এ বিষয়ে অভিযুক্ত পিয়াসের বাবাকে জানালে পিয়াসের বাবা আনাল ও পিয়াস আমার স্ত্রী ও মেয়েকে মারধর করে। পিয়াস আগে থেকেই তার মেয়েকে প্রায় উত্ত্যক্ত করত।

চাটখিল থানার ওসি আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলে, এ ঘটনায় ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে পিয়াসকে আটক করে। দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: