প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

চলছে হাট, খোলা দোকান!

   
প্রকাশিত: ১০:৪৯ অপরাহ্ণ, ২৬ মার্চ ২০২০

করোনা ভাইরাস সংক্রমন ঠেকাতে গণজমায়েত বন্ধ করে সরকার বৃহস্পতিবার থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিন সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছেন। এ সময় জরুরী সেবা, পণ্যপরিবহন, নিত্যপণ্য ও ওষুদের দোকান ছাড়া প্রায় সবকিছু বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে বগুড়ার শাজাহানপুরে বন্ধ হয়নি হাট, বাজার ও দোকানপাট।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) উপজেলার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলা সদর মাঝিড়া বন্দরের মাছের আড়ৎ শত শত মানুষের সমাগম হয়েছে। এছাড়া উপজেলার বৃহৎ হাট নয়মাইলহাট জমজমাট ভাবে চালু রয়েছে। নিত্যপণ্যের পাশাপাশি কাপড়, জুতা-সেন্ডেল, কীটনাশক, সেনেটারি, বেকারি, কসমেটিক, ওয়েলডিং, মাছ, মাংস সহ বিভিন্ন ধরনের দোকানপাট খোলা রয়েছে। সৃষ্টি হয়েছে বিশালাকারের গণজমায়েত। অধিকাংশ হাটুরেদের মাস্ক ব্যবহার করতে দেখা যায়নি। নেই কোন হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। নিত্যদিনের মতই হাটুরেদের কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। এদের মধ্যে সচেতনতামূলক কোন কর্মকান্ড চোখে পড়েনি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহমুদা পারভীনের সাথে তার সরকারি মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও এই সংকটময় মূহূর্তেও তিনি ফোন ধরেননি।

পরে খবর পেয়ে দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা পারভীন নয়মাইল হাটে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যামাণ আদালতে একটি ওয়েলডিং দোকানে জরিমানা আদায় করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের পেশকার মোজাহিদুল ইসলাম জানান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা পারভীন নয়মাইল হাটে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যামাণ আদালতে আমজাদ হোসেন নামে একজন ওয়েলডিং দোকানদারের এক হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ সময় দোকানদার ও হাটে আসা মানুষদেরকে সরকারের নির্দেশ মেনে চলতে সতর্ক করেন তিনি।

এছাড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্রিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জিএম রাশেদুল ইসলাম নয়মাইল হাটে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যামাণ আদালতে দুই ভাই ভ্যারাইটি স্টোর ৭০০ টাকা এবং জেমি ওয়েলডিং দোকানে এক হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন বলেও জানান তিনি।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: