প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নুরুল আমিন

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

চাকুরির জন্য সময় ব্যয় না করে তরুণদের উদ্যোক্তা হতে হবে: পার্বত্যমন্ত্রী

   
প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, বাংলাদেশে এখন কর্ম অক্ষম মানুষের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। তাই চাকুরি লাভের আশায় সময় ব্যয় না করে তরুণদের উদ্ভাবনী জ্ঞান ও সৃজনশীল মেধাকে কাজে লাগিয়ে আত্মকর্মসংস্থান ও উদ্যোক্তা হতে হবে। তরুণরাই দেশের উন্নয়নের কান্ডারী। তাদের হাত ধরেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে অ্যাডভেঞ্চার পর্যটন শিল্পের সম্ভাবনাকে আরো বিকশিত করবে। এ সকল কাযক্রমে অংশগ্রহণ করে অংশগ্রহণকারী নিশ্চিয় অনেক কিছু শিখতে পারেছে। বিভিন্ন ইভেন্টে অংশগ্রহণ করে তরুণরা যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন,তা জীবন ও বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগবে। এই ধরনের ইভেন্ট শৃঙ্খলা ও মানবিক গুণাবলীসহ শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাবে। শুধু অভিজ্ঞতা অর্জন করলে হবে না,অভিজ্ঞতা থেকে অর্জিত জ্ঞানকে জীবনে কাজে লাগাতে হবে এবং সততা, ন্যায়কে কাজে লাগিয়ে যার যার অবস্থান থেকে দেশমাতৃক কল্যাণে নিজেদের নিয়োজিত করতে হবে। নিয়োজিত করতে পারলেই তরুণরাই একদিন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ে তোলতে পারবে।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য মন্ত্রাণালয় সচিব মেজবাউল ইসলাম চৌধুরী, ভারতীয় জাতীয় অ্যাডভেঞ্চার ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রাম সিং বর্মা, বঙ্গবন্ধু জাতীয় অ্যাডভেঞ্চার এর উপদেষ্টা লে. জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) এটিএম জহিরুল আলম, রাঙ্গামাটি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাইনুর রহমান। এছাড়াও অ্যাডভেঞ্চার সাথে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বাংলাদেশ, ফ্রান্স, ভারত, এবং নেপালের সর্বমোট ৮১জন বিভিন্ন ক্যাটাগরীর অ্যাডভেঞ্চারার উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা শেষে অ্যাডভেঞ্চারে অংশ গ্রহণকারীদের মাঝে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করা হয় এবং সন্ধ্যায় আতশবাজি ও ফানুস উড়িয়ে এই পাঁচ দিনব্যাপি উৎসব শেষ করা হয়।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: