প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

‘চীনের সঙ্গে যুদ্ধের তারিখ ঠিক করেছেন মোদি’

   
প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, ২৬ অক্টোবর ২০২০

ছবি: ইন্টারনেট

ভারত-চীনের সীমান্তরেখা নিয়ে দ্বন্দ্ব যেন কাটছেই না। চীনের সঙ্গে লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা চলছে। আবারো সীমান্তে সেনাসংখ্যা বৃদ্ধি করেছে দুই দেশ। সম্প্রতি মুখোমুখি সংঘর্ষও হয়েছে দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে। এতে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহতও হয়েছেন। ইতোমধ্যে উভয় দেশই সীমান্তে বিভিন্ন ভারী সাজোয়া যান ও যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে। সীমান্তজুড়ে সমাবেশ করেছে হাজার হাজার সেনা।

এমন পরিস্থিতে যখন দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে তখনই যুদ্ধকেন্দ্রিক মন্তব্য করেছেন ভারতের উত্তর প্রদেশের বিজেপি প্রধান স্বতন্ত্র দেব সিং। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

কয়েক সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে স্বতন্ত্র দেব সিং-কে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘রাম মন্দির তৈরি ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের তারিখ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই ঠিক করেছিলেন। ঠিক তেমনিভাবে পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে যুদ্ধের তারিখও তিনি ঠিক করে রেখেছেন। সেই অনুযায়ী কাজ হবে।

জানা গেছে, গত শুক্রবার উত্তরপ্রদেশের এক বিজেপি বিধায়ক সঞ্জয় যাদবের বাড়িতে গিয়েছিলেন রাজ্য সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিং। সেখানে গিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সম্পর্কে এই মন্তব্য করেন তিনি।

এর পাশাপাশি সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টির কর্মীদের সঙ্গে জঙ্গিদেরও তুলনা করেন। পরে এ প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে স্থানীয় সংসদ সদস্য রবীন্দ্র কুশওয়া জানান, দলীয় কর্মীদের উজ্জীবিত করার জন্য এই মন্তব্য করেছেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সভাপতি।

রবিবার চীনের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। দার্জিলিংয়ে সুকনায় ভারতীয় সেনার ৩৩ নম্বর কর্পসের সদর দপ্তরে ‘শস্ত্র পুজো’ করেন তিনি। তারপর দেশবাসীকে আশ্বস্ত করে বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি দেশের এক ইঞ্চি জায়গা কাউকেই দখল করতে দেবে না ভারতীয় সেনাবাহিনী।’

বিজয় দশমীর অনুষ্ঠান থেকে চীনকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) প্রধান মোহন ভাগবতও। ভারতীয় সেনার প্রতি তার অগাধ আস্থা রয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের অতি অবশ্যই প্রস্তুত হতে হবে। তবে ভারতীয় সেনাও চীনের দুঃসাহসিকতার উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।’

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: