চেহারা পরিবর্তন করেও রক্ষা পেল না চোর

   
প্রকাশিত: ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

একটি ডেবিট কার্ড চুরি করে পাঠানো হয় বাংলাদেশে। পরে সেটি দিয়ে ১৩ লাখ টাকা তোলা হয়। সেই টাকা তোলার পর আবার পাঠানো হয় দুবাইতে। কিন্তু বুথের ফুটেজ ভাইরাল হতেই অভিযুক্তদের আটক করা হয়েছে। টাকা উত্তোলনকারী অন্যতম অভিযুক্ত তানিয়া আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে ফাঁকি দিতে চেহারা পরিবর্তন করেছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, কার্ডটির মালিক দুবাই প্রবাসী সাইফুল ইসলাম। সাইফুলের কার্ডটি চুরি করেন তারই গাড়িচালক মামুন। চুরির পর তা দেন দুবাইয়ে আরেক বাংলাদেশি ও তার বন্ধু রাজুকে। রাজু কার্ডটি কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠান বাংলাদেশে স্ত্রী তানিয়ার কাছে। কার্ডের গোপন নম্বর আসে হোয়াটসঅ্যাপে। তা দিয়ে তোলা হয় টাকা। যা আবার যায় দুবাইতে। ডিবি’র সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের উপ-কমিশনার মীর মোদদাছছের হোসেন বলেন, তারিখ অনুযায়ী কোন কোন তারিখে টাকা উত্তোলন হয়েছে, তার (টাকা উত্তোলনকারী) মোবাইল ফোন ও অন্যান্য তথ্য প্রযুক্তি যা ব্যবহার করা হয়েছে এগুলোর মাধ্যমে আমরা জানতে পারি তার সঙ্গে কারা কথা বলেছিলো। সেই ক্লু ধরে আমরা প্রথমে গ্রেফতার করি অভিযুক্ত মামুনকে।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: