প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ছাত্রীর মা বাসায় ফিরে দেখেন ‌‘মেয়েকে ধর্ষণ করছে; ছাত্র ইউনিয়ন কর্মী’

   
প্রকাশিত: ৯:৪০ অপরাহ্ণ, ২০ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী তিতুমীর কলেজের ছাত্র ও ছাত্র ইউনিয়ন কর্মী সাজ্জাদ গাজীকে বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৯ অক্টোবর) রাতে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের সময় হাতেনাতে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ওই রাতেই কলেজ ছাত্রীর মায়ের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। অপরদিকে নির্যাতিতা কলেজ ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শের-ই বাংলা মেডিকেলে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদ ওই উপজেলার আমবৌলা গ্রামের খোরশেদ আলম গাজীর ছেলে এবং ঢাকার তিতুমীর কলেজের স্নাতক (সম্মান) শেষ বর্ষের ছাত্র। তিনি বিবাহিত।

সম্প্রতি ঢাকার শাহবাগে দেশব্যাপী ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে সাজ্জাদ সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে গত বুধবার এলাকায় আসে বলে জানান আগৈলঝাড়ার সাংবাদিক তপন বসু।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা কলেজ ছাত্রীর বাবা মারা যাওয়ার পর তার মা আর্থিক অনটনের কারণে আগৈলঝাড়া বন্দর বাজারে ঝাড়ুদারের কাজ নেয়। কাজের সুবাদে বন্দরে একটি ঘর ভাড়া নিয়ে দুই মেয়েসহ বসবাস করে আসছিলেন তিনি। নির্যাতিতা ওই মেয়েটি স্থানীয় একটি কলেজের ছাত্রী। গত প্রায় ৬ মাস আগে ফেসবুকের মাধ্যমে ওই ছাত্রীর সাথে সাজ্জাদ গাজীর পরিচয় এবং পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

সোমবার বিকেলে ওই ছাত্রীর মা বাজারে ঝাড়ু দিতে গেলে সন্ধ্যায় তাদের বাসায় ঢুকে ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে সাজ্জাদ তাকে ধর্ষণ করে। ছাত্রীর মা সন্ধ্যায় বাসায় ফিরে তার মেয়েকে ধর্ষণ করতে দেখে চিৎকার দেয়। এ সময় প্রতিবেশীরা সাজ্জাদকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় ওই রাতেই নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে সাজ্জাদকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি গোলাম সরোয়ার জানান, আসামি সাজ্জাদকে আজ দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। নির্যাতিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: