প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ছুরিঘাতে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে হত্যার চেষ্টা

   
প্রকাশিত: ১০:৩৮ অপরাহ্ণ, ১৪ জুলাই ২০২০

তারেক পাঠান, নরসিংদী থেকে: নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মো. রাজনকে পরিকল্পিতভাবে ছুরিঘাতে হত্যা চেষ্টার করা হয়েছে। সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে শিবপুর উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের পাড়াতলা এলাকার চরআলীনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ছাত্রলীগ নেতা রাজনের পরিবার ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন দুপুরে ওই গ্রামে মাছের খামার দেখতে যায় রাজন। সেখান থেকে আসার পথে পূর্বে থেকে উৎপেতে থাকা চরসিন্দুর ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের বকাটে মাদকাশক্ত সন্ত্রাসী ছেলে মো.আলী রাজনকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। রাজন কিছু বুঝে উঠার আগেই সন্ত্রাসী আলী ছুরি দিয়ে তাকে আঘাত করতে থাকে। পরে তার আত্মচিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে আলীকে হাতেনাথে ধরে ফেলে। ছুরিঘাতে রাজনের বুকের বাম পাশে দুইটি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানান নরসিংদীর সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

আহত ছাত্রলীগ সভাপতি রাজন মিয়া জানান , গত দেড় মাস আগে চরসিন্দুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন রতনের সাথে উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মো,রানা মিয়ার দুলাভাই টিপুর সাধে মারধরের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় চেয়ারম্যানকে বাঁচাতে গিয়ে রানা মিয়ার সাথে আমার হাতাহাতি হয়। তারপর থেকেই রানা আমাকে মারার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন পরিকল্পনায় লিপ্ত হয়। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী সন্ত্রাসী আলীকে ভাড়া করে এ ঘটনা ঘটিয়েছে রানা।

রাজন বলেন ,ওই সময় গ্রামবাসীদের জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আলী স্বীকার করে রানা মিয়ার নির্দেশেই আমাকে হত্যা করার জন্য এ হামলা করেছে। এ বিষয়ে পলাশ উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি রানা মিয়ার সাথে যোগাযোগ করার জন্য একাধিকবার মুঠোফোনে কল দিলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মো. রাজনের ওপর হামলাকারী আলী একজন পেশাদার সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। যেহেতু শিবপুর থানাধীন এলাকায় হামলার ঘটনা ঘটেছে,সেহেতু ওই থানায়ই রাজনের বাবা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: