শাহিনুর রহমান শাহিন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাবি শিক্ষার্থীদের উন্মুক্ত লাইব্রেরিতে বই পড়ার সুযোগ

   
প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ, ১২ মার্চ ২০২০

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি), মুরাদ চত্বর কিংবা সমাজবিজ্ঞান অনুষদ, শিক্ষক-শিক্ষার্থীর পদচারণায় দিনভর মুখর থাকে এসব আঙিনা। বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ এই স্থানগুলোতে আড্ডায় মেতে ওঠেন শিক্ষার্থীরা। চায়ের কাপে বন্ধুত্বের আড্ডার পাশাপাশি এসব স্থানে যদি শিল্প-সাহিত্যের চর্চা করা যায় তবে তো মন্দ হয় না। এমন ধারণা থেকেই এই স্থানগুলোতে বসানো হয়েছে উন্মুক্ত লাইব্রেরি।

এখানে রাখা কাঠের বাক্স থেকে বিনামূল্যে পড়া যাবে কবি আল মাহমুদের সোনালী কাবিন, রবীন্দ্রনাথের শেষের কবিতাসহ জাহানারা ইমামের একাত্তরের দিনগুলির মতো গুরুত্বপূর্ণবই। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) সহযোগী সংগঠন ‘ইয়েস গ্রুপ’ এই লাইব্রেরি স্থাপন করেছে। গেল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে এ লাইব্রেরির উদ্বোধন করেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান। লাইব্রেরিগুলো সবসময় খোলা থাকবে এবং যে কেউ এখান থেকে পছন্দমতো বই নিয়ে পড়ে আবার নিজ দায়িত্বে রেখে দিতে পারবে।

বই মানবিক মূল্যবোধকে জাগিয়ে তোলে। আত্মশুদ্ধি ও আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর এই বই। সেই সাথে জ্ঞানের পরিধি বিস্তৃত করে বই। জ্ঞানার্জন কোনো নির্দিষ্ট স্থানের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ উন্মুক্ত লাইব্রেরি রয়েছে, সেখান থেকে যে কেউ বই পড়তে পারে। সেই ধারণা থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ে এই উন্মুক্ত লাইব্রেরি স্থাপন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা। শিক্ষার্থীদের সাড়া দেয়ার মাধ্যমেই এই প্রচেষ্টা সফল হবে বলে মনে করছেন তারা।

ইয়েস গ্রুপের সাবেক টিম লিডার ও উন্মুক্ত লাইব্রেরির স্বপ্নদ্রষ্টা মাহাবুব আলম বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এমন উন্মুক্ত লাইব্রেরি রয়েছে। প্রথমবারের মতো আমরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন লাইব্রেরির স্থাপন করেছি। তিনি আরো বলেন, পড়াশোনাকে কোনো নির্দিষ্ট স্থানের মধ্যে সীমাবদ্ধ করা যাবে না। যার যখন ও যেখানে ইচ্ছা পড়তে পারবে। আর সে উদ্দেশেই আমাদের এই প্রচেষ্টা। আশা করি শিক্ষার্থীরা এই লাইব্রেরির উদ্দেশ্য ফলপ্রসূ করবে। ইয়েস গ্রুপের উপদেষ্টা অধ্যাপক বশির আহমেদ বলেন, এই ধারণাটি খুবই চমৎকার। এর ফলে শিক্ষার্থীরা তাদের আড্ডার পাশাপাশি সময়গুলোকে পড়ার কাজে ব্যয় করতে পারবে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: