প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

জিয়া আ’লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিলেন: তথ্যমন্ত্রী

   
প্রকাশিত: ১০:৪৬ অপরাহ্ণ, ২৮ জুন ২০১৯

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান আওয়ামী লীগকে দ্বিখণ্ডিত করার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার (২৮ জুন) বিকেলে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

এ সময় ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এদেশের মানুষের স্বাধীকার আন্দোলন, ভাষা আন্দোলনসহ সবকিছুতে নেতৃত্ব দিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। ১৯৭৫ সালের গণতন্ত্র যখন মার্শাল ডেমোক্রেসিতে রূপান্তর হলো জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে, গণতন্ত্র যখন অবরুদ্ধ হলো, রাজনীতি যখন কেনাবেচার পণ্যে পরিণত করা হলো, তখন রাজনীতিকে ক্যান্টনমেন্ট থেকে মুক্ত করার জন্য, গণতন্ত্রকে মানুষের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য, মানুষের ভোট এবং ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য আওয়ামী লীগ রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে সংগ্রাম করে গেছে।

তিনি বলেন, যে দলকে জিয়াউর রহমান নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিলেন সে দল শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পর পর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায়।

তিনি আরও বলেন বলেন, আওয়ামী লীগকে দ্বিখণ্ডিত করার চেষ্টায় কিছুটা সফলও হয়েছিলেন তিনি (জিয়াউর রহমান)। অনেকের নিশ্চই মনে আছে-১৯৭৯ সালের সংসদ নির্বাচনের আগে মিজান চৌধুরীকে দিয়ে দল ভাগ করানো হয়েছিল। মিজান চৌধুরীর নেতৃত্বে যদি সেদিন দল ভাগ না হতো তাহলে ১৯৭৯ সালের সংসদ নির্বাচনে আমরা আরও বেশি সংখ্যক আসন লাভ করতে পারতাম।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

সভায় বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম, সহ-সভাপতি ও মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট মো. ফখরুদ্দীন চৌধুরী প্রমুখ।

এইচএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: