প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে প্রণব মুখার্জি

   
প্রকাশিত: ৬:২৯ অপরাহ্ণ, ১১ আগস্ট ২০২০

ছবি: ইন্টারনেট

ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির মাথায় রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ার কারণে জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে। সাবেক এই কংগ্রেস নেতাকে দিল্লির একটি সামরিক হাসপাতালে ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখা হয়েছে। মস্তিস্কে রক্তজমাট বাধার পাশাপাশি করোনাভাইরাসেও আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

আপাতত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতিকে আগামী ৯৬ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। প্রণব মুখোপাধ্যায় গতকাল সোমবার (১০ আগস্ট) বিকেলে নিজেই টুইট করে তাঁর করোনা সংক্রমণের কথা জানান। তিনি টুইট করে বলেন, ‘অন্য একটা কাজে হাসপাতালে গিয়ে নমুনা পরীক্ষা করিয়েছি। আমার করোনা পজিটিভ এসেছে। আমার আবেদন, গত কয়েক দিন যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁরা নিজেদের আইসোলেশনে রাখুন এবং করোনা পরীক্ষা করান।’ সোমবারই নয়াদিল্লির আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল হাসপাতালে প্রণব মুখার্জির মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়। এনডিটিভি বলছে, সফলভাবে সেই অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। আঘাতের কারণে তার মস্তিষ্কে রক্তজমাট বেঁধেছিল। অস্ত্রোপচারে তা অপসারণ করা হয়। এর পর তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হয়ে পড়ে। তাকে ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দেয়া হয়েছে।

টুইটে এই নেতার টুইট দেখে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল লেখেন, ‘সাবধানে থাকবেন স্যার। আমরা আপনার দ্রুত আরোগ্য ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।’ দিল্লি কংগ্রেসের সাবেক প্রধান অজয় মাকেন টুইট করেন, ‘স্যার, আপনার দ্রুত আরোগ্য এবং দীর্ঘ ও সুস্থ জীবন কামনা করছি।’ ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়াল বলেন, ‘আপনার সুস্থতা ও দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’ এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, আগের দিন রাতে টয়লেটে পড়ে গিয়েছিলেন প্রণব মুখার্জি। তার মাথায় আঘাত লেগেছিল। মাথা ফাটেনি, কিন্তু স্নায়ুর কিছু সমস্যা দেখা দেয়ায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরীক্ষা করে দেখা যায়, তার মাথায় রক্তজমাট বেঁধে আছে। জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করা দরকার। তার জন্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে গিয়েই ধরা পড়ে, তার কোভিডও হয়েছে। এ দিনই অস্ত্রোপচার করা হয় প্রণবের। তাকে ভেন্টিলেশনে দিয়ে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকরা।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: