প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

শামসুজ্জোহা বাবু

রাজশাহী প্রতিনিধি

জুয়াড়ি ছেলের হাতে নির্মম ভাবে খুন বাবা, এরপর শুরু অভিনয়!

   
প্রকাশিত: ৯:৩০ অপরাহ্ণ, ২৩ অক্টোবর ২০২০

রাজশাহীর পুঠিয়ায় একমাত্র পুত্র জুয়াড়ু শরিফুল ইসলামের হাতে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হোন পিতা অহির বক্স (৫৮)। পুলিশ ঘাতক পুত্রকে আটক করেন। পরে সে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি শিকার করেছে। এদিকে আটককৃত শরিফুলকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) বিকেলে থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাসমত আলী গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ১৯ অক্টোবর সকালে অহির বক্স বাড়ির বাহিরে গেলে একমাত্র ছেলে শরিফুল ইসলাম জুয়া খেলার জন্য এবং ঋণের টাকা পরিশোধ করতে তার পিতার পকেটে থাকা ১৮ হাজার টাকা চুরি করে। অহির বক্স দুপুরে বাড়ি এসে পকেটে টাকা না পেয়ে ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তখন ছেলে শরিফুল স্বীকার করেছে যে সেই তার বাবার পকেটে থাকা টাকা নিয়েছে। এরপর পিতা অহির বক্স শরিফুল ওই টাকা ফেরত দেওয়ার চাপ দেন। কিন্ত শরিফুল টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করে পিতা অহির বক্সকে জোরে ধাক্কা মারে। ধাক্কার কারণে অহির বক্স চৌকির কর্নারের উপর পড়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তখন শরিফুল তার পিতার জ্ঞান ফিরানোর জন্য বুকের উপর চাপা দিলেও তার জ্ঞান ফিরেনি। এক পর্যায়ে সে বুঝতে পারে যে তার পিতা মারা গেছেন, তখন শরিফুল নিজে বাচার জন্য তার পিতার লাশ চৌকির উপর রেখে বাড়ির গেটে তালা লাগিয়ে বাহিরের অবস্থান করে। এরপর রাতের অন্ধকারের অপেক্ষায় থাকে সে। রাত গভীর হতে থাকলে শরিফুল তার পিতার লাশ পিঠে বহন করে বাড়ির পাশে আম বাগানে ফেলে আসে। পরে বাড়ি ফিরে তরকারি কাটা হাসুয়া দিয়ে পিতার লাশের দুই পায়ের রগ কেটে দেয়। এরপর থেকে শুরু হয় তার অভিনয়। রাতের বেলায় শরিফুলের মা বাড়ি এসে তার পিতার খোঁজ করলে শরিফুল বলে বাবা বিকেলে বাড়ি থেকে গেছেন আর ফিরেনি। পরেরদিন ২০ অক্টোবর সকালে স্থানীয় লোকজন বাড়ির পাশে একটি আম বাগানে তার লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেন। ওইদিন নিহতের স্ত্রী জরিনা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: