প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

টিভির সাউন্ড না কমানোয় মায়ের নির্মমতা !

   
প্রকাশিত: ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ, ২১ জানুয়ারি ২০২০

টিভির সাউন্ড না কমানোয় টাঙ্গাইলের আমিন বাজার এলাকায় শ্বাসরোধ করে সাইফ উদ্দিন নামে ৮ বছরের শিশুকে হাত-পা বেঁধে হত্যা মামলায় ১৬৪ ধারায় সৎ মা সাবরিনা বেগম সিনথি স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সোমবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক মুনিরা সুলতানার নিকট তিনি এ জবানবন্দি প্রদান করেন। পরে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়। এর আগে বিকেলে পুলিশ তাকে আদালতে প্রেরন করেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত জানান, শহরের আমিন বাজার এলাকায় সাইফের বাবা ভাড়া বাসায় থাকতেন। ঘটনার দিন শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যা শিশু সাইফকে নিয়ে টিভি দেখছিলেন তার সৎ না সাবরিন বেগম সিনথি। এসময় টিভির সাউন্ড বাড়িয়ে রেখেছিলো সাইফ। বেশ কয়েকবার সাইফকে সাউন্ড কমাতে বলায় সেটি না কমানোয় শিশু সাইফকে তার সৎ মা হাত-পা বেঁধে বাসার একটি কক্ষে আটকে রাখেন। ৩০/৪০ মিনিট পর ঘর খুলে দেখতে পান সাইফ বেঁচে নেই। পরে হাত-পা বাঁধা অবস্থাতেই সাইফকে বাথরুমে পানির বালতিতে মুখ ডুবিয়ে রাখেন। পরে ডাকাতির নাটক সাজিয়ে সাইফের বাবাকে ফোন দেন। ফোনে তিনি সাইফের বাবা মোঃ সালাউদ্দিনকে জানান, অজ্ঞাতনামা তিনজন দুষ্কৃতকারী তাদের বাসায় ঢুকে তার ও ছেলের হাত-পা বেধে স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে। তারা যাওয়ার সময় সাইফকে বাথরুমে পানির বালতিতে ডুবিয়ে রেখে যায়। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে সিনথি এই তথ্য জানিয়েছেন। খবর পেয়ে টাঙ্গাইল সদর থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করে। সাবরিনা নাহারের ঘটনার বর্ণনাটি তাদের রহস্যজনক মনে হলে পুলিশ সাবরিনা নাহার ও তার স্বামী সালাউদ্দিনকে আটক করে।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: