প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

ঢাবিতে আজ থেকে চালু হচ্ছে সেনেটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন

   
প্রকাশিত: ৮:৪৭ অপরাহ্ণ, ৪ ডিসেম্বর ২০১৯

মনিরুজ্জামান, ঢাবি থেকে: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ বুধবার (৪ ডিসেম্বর) থেকে চালু হচ্ছে সেনেটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন। বিকেল ৩টায় ঢাবিতে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের সামনে পায়রা চত্বরে এর উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)। সেনিটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ১০টি স্থানে স্থাপন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা ১০টাকার বিনিময়ে পাবে এক-একটি সেনেটারি ন্যাপকিন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অংশ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মণি, উপস্থিত ছিলেন ঢাবি প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরিন আহমেদ। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন– মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব আরিফা পারভীন মৌসুমী, ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানী, ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আল-নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্য সহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী দীপু মণি বলেন, ‘মাসের বিশেষ একটা সময়ে নারীদের এই প্রাকৃতিক নিয়মের পক্ষে ডাকসুর এই স্যানেটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন স্থাপন আমাদের নারী স্বাস্থ্য রক্ষায় বিরাট ভূমিকা পালন করবে। দেশে নারীদের স্বাস্থ্য নিয়ে তেমন উদ্যোগ নেয়া হয় না কিন্তু ডাকসু এই ধরনের উদ্যোগ নেওয়ায় তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ।’

অনুষ্ঠানে ডাকসুর এজিএস গোলাম রাব্বানী বলেন, ডাকসু হওয়ার পর ডাকসু যতগুলো কাজ করেছে সেনেটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন তার মধ্যে অন্যতম। এটি একটি নতুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপহার দিবে।

তিনি বলেন, ডাকসু যে ম্যানডেট দিয়েছিল তার এক-একটি করে পূরন করে চলছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সব সময় জাতিকে পথ দেখিয়েছে। আগামীদিনেও ডাকসুর নেতৃত্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতিতে পথ দেখিয়ে চলবে।

অনুষ্ঠানে চিত্র-নায়না আরিফা পারভীন মৌসুমী সেনেটারি ন্যাপকিন সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, এটা এমন একটি বিষয় যার সম্পর্কে মেয়েরা বলতে চায় কিন্তু লজ্জায় বলতে পারে না। আজ আমরা এ জায়গা থেকে বেরিয়ে এসেছি।

তিনি আরো বলেন, যখন আমরা ছেলেদের সাথে তাল মিলিয়ে চলাল সপ্ন দেখি, তখন কেন আমাদের সচেতন করার জন্য এমন উদ্যোগ নেয়ার প্রয়োজন হবে। আমাদের লজ্জা থেকে বেরিয়ে এসে সামনের দিকে এগিয়ে চলতে হবে।

তিনি ভেন্ডিং মেশিনের কথা বলতে গিয়ে বলেন, এখানকার এক-একটি মেশিনের মাধ্যমে ছেলেরা সতর্ক ও সচেতন হবে। তারা বুঝতে পারবে মেয়েদের কত কষ্ট করতে হয়। এর মাধ্যমে তাদের মাঝে মেয়েদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ তৈরি হবে।

ঢাবি প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসরিন আহমেদ বলেন, সেনেটারি ন্যাপকিন এটা এমন একটা বিষয় যেটা নিয়ে আমরা কখনো কতা বলি না। কিন্তু আজ সেনেটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিনের মাধ্যমে এ বিষয়ে সবকিছু উন্মুক্ত হয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বানিজ্য অনুষদের ডিন শিবলী রুবায়েত বলেন, এদেশের প্রতিটি অর্জনেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাতাস লেগেছে। আজ এমন একটি যুগান্তকারী উদ্যোগের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাথে আরো একটি অর্জনের যুক্ত হলো।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: