প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

তরুণীকে অপহরণ করে দল‌বেঁধে ধর্ষণ, সু‌বিচার নি‌য়ে শঙ্কা কা‌দের সি‌দ্দিকীর

   
প্রকাশিত: ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ, ২৩ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে কলেজছাত্রীকে অপহরণ করে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দা‌য়েরের তিন‌দিন অ‌তিবা‌হিত হ‌লে ধর্ষক‌দের গ্রেফতার কর‌তে পা‌রে‌নি পু‌লিশ। ত‌বে পুলিশ বল‌ছে আসামিরা পলাতক থাকায় তা‌দের গ্রেফতার করা যা‌চ্ছে না। এদিকে, ওই নির্যা‌তিতা ক‌লেজ ছাত্রী‌কে হাসপাতা‌লে দেখ‌তে গি‌য়ে বঙ্গবীর আব্দুল কা‌দের সি‌দ্দিকী সু‌বিচার না পাওয়ার শঙ্কা প্রকাশ ক‌রে‌ছেন।

বৃহস্প‌তিবার (২২ অ‌ক্টোবর) দুপু‌রে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম চিকিৎসাধীন ওই ছাত্রীর খোঁজ-খবর নি‌তে হাসপাতা‌লে দেখ‌তে যান। এসময় কাদের সিদ্দিকী ব‌লেন, মেয়েটির স্বাস্থ্যগত এবং মামলার অগ্রগতি বিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক ও পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা হ‌য়ে‌ছে। এসময় ন্যায় বিচারের স্বার্থে প্রভাবমুক্ত তদন্তের আহবান জানিয়ে‌ছি। এছাড়া তি‌নি গতকাল বুধবার গোপালপুর ওই ক‌লেজ ছাত্রীর বা‌ড়ি‌তেও যান।

এদিকে, ওই ক‌লেজ ছাত্রীর প‌রিবা‌রের অভিযোগ, ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার জন্য একটি প্রভাবশালী মহল সামা‌জিক যোগা‌যোগ মাধ‌্যম ফেসবুকসহ সোশ্যাল মিডিয়ায় অশালীন মন্তব‌্য, হুম‌কিসহ বি‌ভিন্ন লেখা পোস্ট ক‌রে প্রচারণা ও সামাজিকভাবে নিগৃহ করার চেষ্টা করছে।

টাঙ্গাইল জেনা‌রেল হাসপাতা‌লের গাই‌নি বিভা‌গের চি‌কিৎসক জাকিয়া শাফি ক‌লেজছাত্রী‌কে শারী‌রিক নির্যাতনের প্রমা‌ণের কথা বল‌লেও সোয়াপ রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তি‌নি কোন মন্তব‌্য জানাতে রা‌জি হন‌নি।

হাসপাতা‌লটির তত্বাধায়ক ডা. সদর উদ্দীন ব‌লেন, প্রাথমিকভাবে ক‌লেজ ছাত্রী‌কে নির্যাতন ও ধর্ষণের আলামত পাওয়া গে‌ছে।

বাংলা‌দেশ মানবা‌ধিবার বাস্তবায়ন সংস্থার জেলা শাখার সম্পাদক অ্যাড‌ভো‌কেট আতাউর রহমান আজাদ ব‌লেন, ধর্ষণের মে‌ডি‌ক্যাল রি‌পোর্ট পে‌তেই হ‌বে এরকম কোন বাধ‌্যবাধকতা নেই। সামা‌জিক পারিপা‌শ্বির্ক অবস্থা এবং ভিক‌টি‌মের জবানব‌ন্দির ভি‌ত্তি‌তেও বিজ্ঞ আদালত ইতোপূ‌র্বেও আসামি‌দের শা‌স্তি দি‌য়ে‌ছেন। হাইকোর্টেরও এমন নির্দেশনা আছে।

টাঙ্গাই‌লের পু‌লিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, গণধর্ষণের বিষয়টি খুবই গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। আসামিরা পলাতক রয়েছে। খুব দ্রুত তাদের গ্রেপ্তার করে আই‌নের আওতায় আনা হ‌বে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: