প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

তিনটি বোমা নিক্ষেপের পরেও বেঁচে গেলেন ছাত্রলীগ নেতা

   
প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, ৩ জানুয়ারি ২০২০

পরপর তিনটি বোমা নিক্ষেপ করার পরেও বেঁচে গেলেন যশোরের শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নাসির হোসেন (২৮)। তার ওপর পরপর তিনটি বোমা হামলার চেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। কিন্তু বোমাগুলো বিস্ফোরণ না হওয়ায় ছাত্রলীগ নেতা নাসির বেঁচে গেছেন। নাসির বেনাপোল কলেজপাড়া এলাকার বাবলুর রহমানের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) রাত সাড়ে আটটার দিকে রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে ২-৩ জন দুর্বৃত্ত এসব বোমা হামলা চালায়। এ ঘটনায় বেনাপোলের কলেজপাড়ার কেলেরকান্দা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে অবিস্ফোরিত তিনটি বোমা উদ্ধার করেছে বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ। ঘটনায় বেনাপোল পোর্ট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন নাসির। এ বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা নাসির জানান, কাজ শেষে বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পর কেলেরকান্দা মসজিদের পাশে আমার বড় ভাইয়ের বাড়িতে নির্মাণ কাজ দেখতে যাওয়ার সময় সেখানে অপেক্ষায় থাকা দুর্বৃত্তরা পেছন দিকে আমার ওপর বোমা হামলা চালায়। তারা একটি বোমা আমার মাথায় নিক্ষেপ করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত বোমাটি বিস্ফোরণ না হওয়ায় আমি প্রাণে বেঁচে যাই। এরপর আরও দুটি বোমা নিক্ষেপ করে তারা। এসময় আমার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। তারা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিল বলেও জানান নাসির।

নাসির বলেন, এর পরপরই আশপাশে থাকা আমার আত্মীয় স্বজনরা ঘটনাস্থলে এলে আমি মোবাইলে পুলিশকে সংবাদ দেই। পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে তিনটি অবিস্ফোরিত বোমা উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তিনি আরও জানান, রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা এ বোমা চালিয়েছে। এর আগেও আমার বাড়িতে একইভাবে হামলা চালিয়েছিল। বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মামুন খান জানান, বোমা হামলার ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থল থেকে তিনটি অবিস্ফোরিত বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তের পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এফএএস/এসএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: