প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাইফুল মাহমুদ

সীতাকুন্ড, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

দীর্ঘ এক যুগ ধরে বন্ধ মীরসরাই রেল স্টেশন

   
প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মীরসরাই রেল স্টেশন বন্ধ চট্টগ্রামের মীরসরাই রেলওয়ে স্টেশনটি দীর্ঘ এক যুগধরে বন্ধ। শতবর্ষী এই স্টেশনটি বন্ধ হওয়ার পর বিভিন্ন স্থাপনা ও মালামাল চুরি হয়ে যাচেছ। কখন চালূ হবে সে আশায় বুক বাঁধছেন স্থানীয়রা। স্টেশনটিতে পুনরায় ট্রেন থামলে হাজার হাজার মানুষ সুফল পাবে বলে এলাকাবাসীর অভিমত। জনমানবহীন স্টেশনের কক্ষগুলোতে গরু, ছাগল পালন, জুয়ার আড্ডা, মাদকসেবীর আড্ডাসহ নানান অনিয়ম চলতে থাকে। লোকবল সংক্টের কারনে স্টেশনটি বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছে র্পূব অঞ্চলের রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

আর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রেলওয়ের দক্ষ জনবল সংকটের কথা। পাশপাশি বলছেন, দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থ চলে যাওয়া এবং রেলওয়ের সম্পতি থেকে আয় আসছে না এ কারনে লোকসানে থাকে রেল। চট্টগ্রামের সিতাকুন্ড থেকে সাইফুল মাহমুদের রিপোর্ট। ১৮৯৫ সালের ১ জুলাই কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রামে ১৪৯ দশমিক ৮৯ কিলোমিটার মিটারগেজ রেলপথ নির্মিত হয়েছিলো। আসাম বেঙ্গলে রেলওয়ের থাকাকালীন সেই ব্রিটিশ আমল থেকে এ স্টেশনগুলোতে নিয়মিত ট্রেন থামত। ফলে এলাকার মানুষ ছিলো ট্রেন নির্ভর। ভ্রমন, সবজি, ফলমূল আমদানি-রফতনিসহ বিভিন্ন জরুরি কাজে ট্রেনই ছিলো প্রিয় পরিবহন। একসময় এসব স্টেশন থেকে ভারত, পাকিস্তানেও মালামাল আনা নেওয়া হতো। কিন্তু ২০০৮ সালে আয় কম যাওয়া ও লোকবল সংকটের কারনে স্টেশনটি বন্ধ হয়ে যায়। বন্ধ হওয়ার ফলে নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জামি। দখল হয়ে গেছে অনেক জায়গা। মিরসরাই উপজেলা সদর রেল স্টেশনটি হওয়া যোগাযোগে সবার জন্য খুবই প্রয়োজনীয় স্টেশন ছিলো এটি। স্টেশনটি জনগুরুত্ববহ হবার পর দীর্ঘদিন ধরে এলাকার জনগন হতাশা প্রকাশ করছে। যাত্রী পরিবহন ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে মালামালও পরিবহন করা হতো এই স্টেশন থেকে। এ এম এম শাহনেওয়াজ চীফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট (পূর্ব) বাংলাদেশ রেলওয়ে, বলেন, লোকবল সল্পতার কারনে স্টেশনটি বন্ধ। সরকার লোকবল নিয়োগ দিলে পুনরায় স্টেশনটি আবার চালু করা হবে। প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার বলেন, সাবেক সভাপতি, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম, আর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রেলওয়ের দক্ষ জনবল সংকটের কথা। পাশাপাশি বলছেন বন্দ স্টেশনের কারনে গতি হারায় ট্রেন। পাশপাশি বলছেন, দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থ চলে যাওয়া এবং রেলওয়ের সম্পতি থেকে আয় আসছে না এ কারনে লোকসানে থাকে রেল। পাশাপাশি রেলওয়ের শত বছরের পুরোনো স্টেশনটি আবারও চালু হবে এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: