দীর্ঘ ২৩ দিন পর নিজ কার্যালয়ে বসলেন ভিপি নুর

   
প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক নুর ও তার সহযোগীদের ওপর হামলার দীর্ঘ ২৩ দিন পর নিজ কার্যালয়ে প্রবেশ করলেন নুর। হামলার ঘটনায় এতদিন কক্ষটি তালাবদ্ধ অবস্থায় থাকলেও অবশেষে আজ বুধবার (১৫ জানুয়ারি) বেলা আড়াইটার দিকে তা খুলে দেয়া হয়। এ সময় নুর তার অনুসারীদের নিয়ে ডাকসু ভবনে প্রবেশ করেন তিনি।

এসময় তার সঙ্গে ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ১০-১৫ জন নেতাকর্মী সঙ্গে ছিলেন। উল্লেখ্য, হামলার পর দীর্ঘ ২৩ দিন পর অবশেষে ডাকসুতে নিজ কার্যালয়ে প্রবেশের অনুমতি মেলে নুরের। এর আগে ২৩ ডিসেম্বর হামলার পরে বিষয়টি তদন্তের কাজে কক্ষটি তালাবদ্ধ করে তদন্ত কমিটি। পরবর্তীতে নুর সুস্থ হয়ে কক্ষে বসতে উপাচার্য ও প্রক্টরের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় নুর পুরোপুরি সুস্থ হলে তাকে কক্ষ বুঝিয়ে দেওয়া হবে বলে আশ্বস্ত করা হয়। পরবর্তীতে ১৪ জানুয়ারি তাকে কক্ষ বুঝিয়ে দেওয়ার কথা বলা হলেও তা দেওয়া হয়নি। অবশেষে বুধবার সকালে তদন্ত কমিটি তালা খুলে ডাকসুর প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদের নিকট কক্ষ বুঝিয়ে দেন।

এর পর বেলা আড়াইটার দিকে ভিপি নুর ডাকসু ভবনে আসলে তার কক্ষ খুলে দেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ। তবে কক্ষের ভিতর কোনো বসার কোনো টেবিল দেখা যায়নি। কক্ষটির জানালার কাঁচ ভাঙা অবস্থায় দেখা যায়। কিছু কাচের টুকরো মেঝেতেও পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ভিপি নুর কর্মকর্তাদের কক্ষটি পরিস্কার করে বসার জন্য চেয়ার ও টেবিল নিয়ে আসতে বলেন। দীর্ঘদিন পর কক্ষে প্রবেশ করে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন ভিপি নুর।

এ বিষয়ে নুর বলেন, তদন্ত কমিটির প্রধান কলা অনুষদের ডিন আবু মো. দেলোয়ার হোসেন আমাকে ফোন দিয়ে চাবি নেওয়ার জন্য বললেন। স্যার সিনিয়ার প্রশাসনিক কর্মকর্তা আজাদ ভাইয়ের কাছে চাবি দিলে আমরা তার কাছ থেকে সংগ্রহ করি। ডাকসুতে হামলার তদন্ত চলছে বলে শুনছি অনেকদিন ধরে। কিন্তু সে তদন্তের শেষ কোথায় জানি না। এর আগেও আমার ওপর হামলা হয়েছে। সেই ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠিত হলেও কোন অগ্রগতি হয় নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের তদন্ত কমিটির ওপর আমাদের আস্থা নেই। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময় বিমাতাসুলভ আচরণ করে থাকেন। এই ঘটনাও তার ব্যতিক্রম নয়।

এফএএস/এসএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: